রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

‘বাংলাদেশ-ভারত একই লক্ষ্যে এগোচ্ছে’

আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারত আজ যুগান্তকারী উন্নয়ন, অগ্রগতি এবং সমৃদ্ধি অর্জন করে পৃথিবীতে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এই দুই বন্ধু রাষ্ট্র আজ একই লক্ষ্যে এগোচ্ছে।

শুক্রবার দিল্লিতে ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের সভাপতি জগত প্রকাশ নাড্ডা, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর, ভারতের রেলওয়ে ও যোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব, দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. বিজয় চাওথাওয়ালের সঙ্গে কয়েকটি দেশের আমন্ত্রিত রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে বিস্ময়কর উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি এনে বিশ্বকে অবাক করেছেন। অন্যদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে গত ১০ বছরে ভারতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাদের স্ব স্ব দেশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত করেছেন। দুই নেতার নেতৃত্বে দুই দেশে শক্তিশালী সরকার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। যার সুফল দুই দেশের মানুষসহ এই অঞ্চলের সবাই পাচ্ছে। দুই নেতা বারবার নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় থেকে রাজনীতি বিজ্ঞানের ‘এন্টি ইনকামবেন্সি’ তত্ত্বকে অকার্যকর প্রমাণ করেছেন। শেখ হাসিনা ২০৪১-এ স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন, আর নরেন্দ্র মোদি ২০৪৭-এ ‘বিকশিত ভারত’ লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন। ‌লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের বছর সামান্য ভিন্ন হলেও দুই নেতার লক্ষ্য একই- নিজের দেশের সব মানুষের চূড়ান্ত সমৃদ্ধি।

ভারতের চলমান নির্বাচনে বিজেপির প্রস্তুতি ও তাদের প্রচারণা দেখার জন্য বিজেপির আমন্ত্রণে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি হিসেবে ড. সেলিম মাহমুদ এখন ভারত সফরে রয়েছেন।

কালের চিঠি / আশিকুর।

Tag :
Popular Post

কোটা বিরোধী আন্দোলনে ঢাকায় ২ শিক্ষার্থী নিহত

‘বাংলাদেশ-ভারত একই লক্ষ্যে এগোচ্ছে’

Update Time : ০৫:০৭:৪৬ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৩ মে ২০২৪

আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ বলেছেন, বাংলাদেশ ও ভারত আজ যুগান্তকারী উন্নয়ন, অগ্রগতি এবং সমৃদ্ধি অর্জন করে পৃথিবীতে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছে। এই দুই বন্ধু রাষ্ট্র আজ একই লক্ষ্যে এগোচ্ছে।

শুক্রবার দিল্লিতে ভারতীয় জনতা পার্টি-বিজেপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দলের সভাপতি জগত প্রকাশ নাড্ডা, ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর, ভারতের রেলওয়ে ও যোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী অশ্বিনী বৈষ্ণব, দলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. বিজয় চাওথাওয়ালের সঙ্গে কয়েকটি দেশের আমন্ত্রিত রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশে বিস্ময়কর উন্নয়ন ও সমৃদ্ধি এনে বিশ্বকে অবাক করেছেন। অন্যদিকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বে গত ১০ বছরে ভারতে ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তাদের স্ব স্ব দেশে রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত করেছেন। দুই নেতার নেতৃত্বে দুই দেশে শক্তিশালী সরকার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। যার সুফল দুই দেশের মানুষসহ এই অঞ্চলের সবাই পাচ্ছে। দুই নেতা বারবার নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় থেকে রাজনীতি বিজ্ঞানের ‘এন্টি ইনকামবেন্সি’ তত্ত্বকে অকার্যকর প্রমাণ করেছেন। শেখ হাসিনা ২০৪১-এ স্মার্ট বাংলাদেশের লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন, আর নরেন্দ্র মোদি ২০৪৭-এ ‘বিকশিত ভারত’ লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছেন। ‌লক্ষ্যমাত্রা অর্জনের বছর সামান্য ভিন্ন হলেও দুই নেতার লক্ষ্য একই- নিজের দেশের সব মানুষের চূড়ান্ত সমৃদ্ধি।

ভারতের চলমান নির্বাচনে বিজেপির প্রস্তুতি ও তাদের প্রচারণা দেখার জন্য বিজেপির আমন্ত্রণে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধি হিসেবে ড. সেলিম মাহমুদ এখন ভারত সফরে রয়েছেন।

কালের চিঠি / আশিকুর।