রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কক্সবাজারে সাড়ে ১২ লাখ ইয়াবা জব্দ!

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বহলতলী খালে জেলে সেজে অবস্থান নিয়ে ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা বড়ির বড় চালান উদ্ধার করেছে পুলিশ। একটি ইঞ্জিন চালিত নৌবোট থেকে ৫টি ড্রামের ভেতরে রাখা ১২৫ প্যাকেট স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় এসব জব্দ করা হয়।

আজ সোমবার (২৯ এপ্রিল) উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের বহলতলী নদীর মোহানা এলাকায় একটি বোটকে গতিরোধ করে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যায় বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সমুদ্রপথে পাচারের সময় এক চালানেই জব্দ করা হয় ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট। প্রতি পিস ইয়াবা তিনশ টাকা হারে জব্দকৃত এই ইয়াবার বর্তমান বাজারমূল্য ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। চকরিয়া থানার ইতিহাসে এত বড় ইয়াবার চালান আগে কখনও উদ্ধার বা জব্দ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, ইয়াবাভর্তি প্লাস্টিকের পাঁচটি ড্রাম কেটে একে একে বের করা হয় অত্যাধুনিক মোড়কের ১২৫টি কার্ড বা পোটলা। এসব পোটলার প্রতিটিতে ১০ হাজার পিস করে সর্বমোট ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবার চালান জব্দ করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, এটি কক্সবাজার পুলিশের এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় ইয়াবার চালান জব্দের ঘটনা। এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

সরকার জেনে-বুঝে খালেদা জিয়াকে মৃত্যুর দিতে ঠেলে দিচ্ছে: মির্জা আব্বাস

কক্সবাজারে সাড়ে ১২ লাখ ইয়াবা জব্দ!

Update Time : ০৫:২১:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ২৯ এপ্রিল ২০২৪

কক্সবাজারের চকরিয়ায় বহলতলী খালে জেলে সেজে অবস্থান নিয়ে ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা বড়ির বড় চালান উদ্ধার করেছে পুলিশ। একটি ইঞ্জিন চালিত নৌবোট থেকে ৫টি ড্রামের ভেতরে রাখা ১২৫ প্যাকেট স্কচটেপ দিয়ে মোড়ানো অবস্থায় এসব জব্দ করা হয়।

আজ সোমবার (২৯ এপ্রিল) উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের বহলতলী নদীর মোহানা এলাকায় একটি বোটকে গতিরোধ করে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানকালে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যায় বলে জানায় পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, কক্সবাজারের টেকনাফ থেকে সমুদ্রপথে পাচারের সময় এক চালানেই জব্দ করা হয় ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবা ট্যাবলেট। প্রতি পিস ইয়াবা তিনশ টাকা হারে জব্দকৃত এই ইয়াবার বর্তমান বাজারমূল্য ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা। চকরিয়া থানার ইতিহাসে এত বড় ইয়াবার চালান আগে কখনও উদ্ধার বা জব্দ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে আরও জানা যায়, ইয়াবাভর্তি প্লাস্টিকের পাঁচটি ড্রাম কেটে একে একে বের করা হয় অত্যাধুনিক মোড়কের ১২৫টি কার্ড বা পোটলা। এসব পোটলার প্রতিটিতে ১০ হাজার পিস করে সর্বমোট ১২ লাখ ৫০ হাজার পিস ইয়াবার চালান জব্দ করা হয়েছে।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, এটি কক্সবাজার পুলিশের এযাবৎকালের সবচেয়ে বড় ইয়াবার চালান জব্দের ঘটনা। এই ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি। এ বিষয়ে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

কালের চিঠি / আলিফ