মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নরসিংদীতে ‘ছন্দা’ সিনেমা হলের জায়গায় হবে মাদরাসা

নরসিংদীতে ৮০’র দশকের তুমুল জনপ্রিয় ‘ছন্দা’ সিনেমা হল। দর্শক বিমুখসহ নানা কারনে হলটির ব্যবসায় ধস নেমেছে। ইতোমধ্যে হলটি স্থানীয় একটি মাদরাসার কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে রায়পুরা হাসনাবাদ এলাকায় হলটিতে গিয়ে দেখা যায়, হলটির সামনে ঝুলছে ‘রাজকুমার’ ছবির পোস্টার। ভিতরে চলছে শো। স্থানীয়দের কয়েকজন জানান, আগে হলটি ভালই চলতো। ৫-৭ বছর ধরে আগের মতো আর চলে না। মাদরাসা ও এতিমখানার পাশেই এই সিনেমা হল। মাদরাসার জায়গাও কম। এখানে বড় দ্বীনি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলে ধর্মচর্চা আরও ভালোভাবে করা যাবে বলে জানান তারা।

মাদরাসার মোহতামিম মো. মোকাররম হোসাইন জানান, মালিকপক্ষ হলটি বিক্রি করার খবরে স্থানীয়রা হলটি মাদরাসার জন্য কেনার পরিকল্পনা করেন। মালিক পক্ষের সাথে কথা বলে দাম ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা ধরা হয়। এর মধ্যে ২০ লাখ টাকায় বায়না দিয়ে দলিল করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩৩ লাখ টাকা জমা পরেছে বলেও জানান তিনি।

ছন্দা হলের কর্মচারী আবুল কালাম ও মোহাম্মদ রবিন জানান, এই হলটিতে সবসময় দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়ে থাকত। বর্তমানে সিনেমা ব্যবসায় মন্দা হওয়ায় আর্থিক অবস্থা খুবই শোচনীয়। মালিকপক্ষ তাদের ঠিকমত বেতনও দিতে পারে না। ঈদ উপলক্ষে শো চলছে। হল বন্ধ থাকলে তাদের বেকার জীবন চলে বলেও জানান তারা।

নরসিংদীর বন্ধ হয়ে যাওয়া আরেক হল মালিক সাদ্দাম হোসেন। তিনি জানান, একসময় নরসিংদীতে ১৯টি সিনেমা হল ছিল। আগে ভালো মানের একটি সিনেমা প্রায় তিন থেকে চার সপ্তাহ টানা চলতো। ভরপুর দর্শক হতো। দুই একটি ব্যতীত সবগুলি হল বন্ধ বলেও জানান তিনি।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :
Popular Post

বেরোবিতে কোঠা ইস্যুতে আন্দোলনকারীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলা

নরসিংদীতে ‘ছন্দা’ সিনেমা হলের জায়গায় হবে মাদরাসা

Update Time : ০৬:৪০:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

নরসিংদীতে ৮০’র দশকের তুমুল জনপ্রিয় ‘ছন্দা’ সিনেমা হল। দর্শক বিমুখসহ নানা কারনে হলটির ব্যবসায় ধস নেমেছে। ইতোমধ্যে হলটি স্থানীয় একটি মাদরাসার কাছে বিক্রি করা হয়েছে।

শনিবার (২০ এপ্রিল) দুপুরে রায়পুরা হাসনাবাদ এলাকায় হলটিতে গিয়ে দেখা যায়, হলটির সামনে ঝুলছে ‘রাজকুমার’ ছবির পোস্টার। ভিতরে চলছে শো। স্থানীয়দের কয়েকজন জানান, আগে হলটি ভালই চলতো। ৫-৭ বছর ধরে আগের মতো আর চলে না। মাদরাসা ও এতিমখানার পাশেই এই সিনেমা হল। মাদরাসার জায়গাও কম। এখানে বড় দ্বীনি প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলে ধর্মচর্চা আরও ভালোভাবে করা যাবে বলে জানান তারা।

মাদরাসার মোহতামিম মো. মোকাররম হোসাইন জানান, মালিকপক্ষ হলটি বিক্রি করার খবরে স্থানীয়রা হলটি মাদরাসার জন্য কেনার পরিকল্পনা করেন। মালিক পক্ষের সাথে কথা বলে দাম ১ কোটি ৩০ লাখ টাকা ধরা হয়। এর মধ্যে ২০ লাখ টাকায় বায়না দিয়ে দলিল করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত প্রায় ৩৩ লাখ টাকা জমা পরেছে বলেও জানান তিনি।

ছন্দা হলের কর্মচারী আবুল কালাম ও মোহাম্মদ রবিন জানান, এই হলটিতে সবসময় দর্শকদের উপচে পড়া ভিড়ে থাকত। বর্তমানে সিনেমা ব্যবসায় মন্দা হওয়ায় আর্থিক অবস্থা খুবই শোচনীয়। মালিকপক্ষ তাদের ঠিকমত বেতনও দিতে পারে না। ঈদ উপলক্ষে শো চলছে। হল বন্ধ থাকলে তাদের বেকার জীবন চলে বলেও জানান তারা।

নরসিংদীর বন্ধ হয়ে যাওয়া আরেক হল মালিক সাদ্দাম হোসেন। তিনি জানান, একসময় নরসিংদীতে ১৯টি সিনেমা হল ছিল। আগে ভালো মানের একটি সিনেমা প্রায় তিন থেকে চার সপ্তাহ টানা চলতো। ভরপুর দর্শক হতো। দুই একটি ব্যতীত সবগুলি হল বন্ধ বলেও জানান তিনি।

কালের চিঠি / আলিফ