রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে চান রোহিত 

রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে গত এক যুগ ধরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে না ভারত-পাকিস্তান। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ তো দূরের কথা, আইসিসি কিংবা এসিসির টুর্নামেন্টেও কেউ কারো দেশে খেলতে যেতে চায় না। এমন অবস্থায় ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে নিয়মিত সিরিজ খেলতে চান তিনি।

২০০৭ সালের পর আর পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলা হয়নি ভারতের। আইসিসি টুর্নামেন্টের সুবাদে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তারা মুখোমুখি হলেও টেস্টে এই দ্বৈরথ দেখা যায় না অনেকদিন ধরেই। রোহিত শর্মার চাওয়া টেস্ট ক্রিকেটের স্বার্থে ভারত-পাকিস্তান নিয়মিত দ্বিপক্ষীয় সিরিজে মুখোমুখি হোক।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাতে ক্লাব প্রেইরি ফায়ার নামের একটি পডকাস্টে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভনের মুখোমুখি হন রোহিত। টেস্ট ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হলে কেমন নয়, ভনের এই প্রশ্নের জবাবে রোহিত বলেন, ‘ওরা (পাকিস্তান) দল হিসেবে দারুণ। ওদের বোলিং লাইন আপ অসাধারণ। আমি মনে করি দারুণ এক প্রতিযোগিতা হবে, বিশেষ করে খেলাটা যদি বিদেশের কন্ডিশনে হয়। সর্বশেষ ভারত–পাকিস্তান ২০০৬ বা ২০০৮ সালে (আসলে ২০০৭ সালে) টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে। কলকাতায় হওয়া ম্যাচটিতে ওয়াসিম জাফর ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন।’

আইসিসি টুর্নামেন্ট ব্যতীত দ্বিপাক্ষিক সিরিজে পাকিস্তানের বিপক্ষে নামা হয় না ভারতের। তবে ভারতের অধিনায়ক চান, পাকিস্তানের বিপক্ষে নিয়মিত সিরিজ খেলতে।

 

নিয়মিত পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চান কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে রোহিত বলেন, ‘আমি চাই। সেটা হলে ভালোই হবে। দিন শেষে আমরা প্রতিযোগিতার মধ্যে থাকতে পারব। আমার মনে হয় দুই দলের লড়াইটা হাড্ডাহাড্ডি হবে। যাই হোক, আমরা এখন আইসিসির টুর্নামেন্টে খেলছি। তাই অন্য কোনো সিরিজে খেলা ব্যাপার না। আমার সব আগ্রহ নির্ভেজাল ক্রিকেট নিয়ে। এটা হবে নির্ভেজাল ক্রিকেট। এটাও ব্যাট–বলেরই লড়াই। তাহলে এমন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সিরিজ খেলতে আপত্তি কোথায়?’

সর্বশেষ গত বছরের অক্টোবরে ওয়ানডে বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত–পাকিস্তান। সে ম্যাচে স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণক্ষমতা ১ লাখ ৩২ লাখ হলেও ক্রিকেটপ্রেমীদের তুমুল আগ্রহের কারণে প্রায় দেড় লাখের মতো টিকিট বিক্রি করতে বাধ্য হয় আয়োজকেরা। এর আগে ২০২২ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল মেলবোর্নে। সে ম্যাচে দর্শক হয়েছিল ৯০ হাজারেরও বেশি। ভারত–পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে ক্রিকেটপ্রেমীদের উন্মাদনা এমনই।

কালের চিঠি/ ফাহিম

Tag :

পাকিস্তানের বিপক্ষে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলতে চান রোহিত 

Update Time : ০৫:০২:১৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২৪

রাজনৈতিক বৈরিতার কারণে গত এক যুগ ধরে দ্বিপাক্ষিক সিরিজ খেলে না ভারত-পাকিস্তান। দ্বিপাক্ষিক সিরিজ তো দূরের কথা, আইসিসি কিংবা এসিসির টুর্নামেন্টেও কেউ কারো দেশে খেলতে যেতে চায় না। এমন অবস্থায় ভারতীয় অধিনায়ক রোহিত শর্মা জানিয়েছেন, পাকিস্তানের বিপক্ষে নিয়মিত সিরিজ খেলতে চান তিনি।

২০০৭ সালের পর আর পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলা হয়নি ভারতের। আইসিসি টুর্নামেন্টের সুবাদে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি ম্যাচে তারা মুখোমুখি হলেও টেস্টে এই দ্বৈরথ দেখা যায় না অনেকদিন ধরেই। রোহিত শর্মার চাওয়া টেস্ট ক্রিকেটের স্বার্থে ভারত-পাকিস্তান নিয়মিত দ্বিপক্ষীয় সিরিজে মুখোমুখি হোক।

বুধবার (১৭ এপ্রিল) রাতে ক্লাব প্রেইরি ফায়ার নামের একটি পডকাস্টে ইংল্যান্ডের সাবেক অধিনায়ক মাইকেল ভনের মুখোমুখি হন রোহিত। টেস্ট ক্রিকেটে ভারত-পাকিস্তান মুখোমুখি হলে কেমন নয়, ভনের এই প্রশ্নের জবাবে রোহিত বলেন, ‘ওরা (পাকিস্তান) দল হিসেবে দারুণ। ওদের বোলিং লাইন আপ অসাধারণ। আমি মনে করি দারুণ এক প্রতিযোগিতা হবে, বিশেষ করে খেলাটা যদি বিদেশের কন্ডিশনে হয়। সর্বশেষ ভারত–পাকিস্তান ২০০৬ বা ২০০৮ সালে (আসলে ২০০৭ সালে) টেস্টে মুখোমুখি হয়েছে। কলকাতায় হওয়া ম্যাচটিতে ওয়াসিম জাফর ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন।’

আইসিসি টুর্নামেন্ট ব্যতীত দ্বিপাক্ষিক সিরিজে পাকিস্তানের বিপক্ষে নামা হয় না ভারতের। তবে ভারতের অধিনায়ক চান, পাকিস্তানের বিপক্ষে নিয়মিত সিরিজ খেলতে।

 

নিয়মিত পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলতে চান কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে রোহিত বলেন, ‘আমি চাই। সেটা হলে ভালোই হবে। দিন শেষে আমরা প্রতিযোগিতার মধ্যে থাকতে পারব। আমার মনে হয় দুই দলের লড়াইটা হাড্ডাহাড্ডি হবে। যাই হোক, আমরা এখন আইসিসির টুর্নামেন্টে খেলছি। তাই অন্য কোনো সিরিজে খেলা ব্যাপার না। আমার সব আগ্রহ নির্ভেজাল ক্রিকেট নিয়ে। এটা হবে নির্ভেজাল ক্রিকেট। এটাও ব্যাট–বলেরই লড়াই। তাহলে এমন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ সিরিজ খেলতে আপত্তি কোথায়?’

সর্বশেষ গত বছরের অক্টোবরে ওয়ানডে বিশ্বকাপে মুখোমুখি হয়েছিল ভারত–পাকিস্তান। সে ম্যাচে স্টেডিয়ামের দর্শক ধারণক্ষমতা ১ লাখ ৩২ লাখ হলেও ক্রিকেটপ্রেমীদের তুমুল আগ্রহের কারণে প্রায় দেড় লাখের মতো টিকিট বিক্রি করতে বাধ্য হয় আয়োজকেরা। এর আগে ২০২২ টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপে দুই দল মুখোমুখি হয়েছিল মেলবোর্নে। সে ম্যাচে দর্শক হয়েছিল ৯০ হাজারেরও বেশি। ভারত–পাকিস্তান ম্যাচ ঘিরে ক্রিকেটপ্রেমীদের উন্মাদনা এমনই।

কালের চিঠি/ ফাহিম