রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

এশিয়া কাপের আয়োজক থেকে বাদ যাচ্ছে ভারত-পাকিস্তান ।

ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বরাবরই খেলার মাঠে প্রভাব ফেলে। ভারত যেমন পাকিস্তানে গিয়ে খেলতে নারাজ ঠিক তেমনি পাকিস্তানও ভারতে খেলতে অস্বীকৃতি জানায়। এমন পরিস্থিতিতে স্থায়ীভাবে এশিয়া কাপের আয়োজকের তালিকা থেকে বাদ যাচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান।

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ। মে মাসে আগামী চার বছরের জন্য এশিয়া কাপের মিডিয়া স্বত্ব বিক্রির বিষয়ে বিডের আয়োজন করবে এসিসি। সেখানে পরবর্তী আসরগুলোর আয়োজক নির্ধারণ নিয়েও হবে সিদ্ধান্ত।

ক্রিকবাজের তথ্য অনুসারে, আগামী চারটি এশিয়া কাপের দুটি হবে ওয়ানডে ও দুটি হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সেই টুর্নামেন্টগুলো আয়োজনের সুযোগ হারাচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান। এই দুই দেশের বৈরিতার কারণে এখন দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলোও বন্ধ। এর ওপর আইসিসি ইভেন্টগুলোতে দেশ দুটির এমন গড়িমসিতে বেশ বিরক্ত এসিসি। মূলত, বিতর্ক এড়াতেই ভারত-পাকিস্তানকে আয়োজকের তালিকায় না রাখার সিদ্ধান্ত এসিসির

জানা গেছে, বিসিবি যদি এই বিডে অংশ নেয়, তাহলে আগামী এশিয়া কাপের আসরগুলোতে একক আয়োজক হওয়ার সুযোগ থাকবে বাংলাদেশের। আগের চার আসরের জন্য মিডিয়া স্বত্ব বিক্রি হয়েছিল প্রায় ৮০ মিলিয়ন ডলারে। এবার যে তা আরও বেড়ে দাঁড়াবে, তা তো বলাই যায়।

কালের চিঠি/ ফাহিম

Tag :

এমপি আনার খুন: মূল পরিকল্পনাকারী শাহীন যুক্তরাষ্ট্রে পালিয়েছেন বলে ধারণা ডিবির

এশিয়া কাপের আয়োজক থেকে বাদ যাচ্ছে ভারত-পাকিস্তান ।

Update Time : ০৪:৪১:৫৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

ভারত-পাকিস্তানের রাজনৈতিক দ্বন্দ্ব বরাবরই খেলার মাঠে প্রভাব ফেলে। ভারত যেমন পাকিস্তানে গিয়ে খেলতে নারাজ ঠিক তেমনি পাকিস্তানও ভারতে খেলতে অস্বীকৃতি জানায়। এমন পরিস্থিতিতে স্থায়ীভাবে এশিয়া কাপের আয়োজকের তালিকা থেকে বাদ যাচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান।

গতকাল মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) এক প্রতিবেদনে এমনটাই জানিয়েছে জনপ্রিয় ক্রিকেটভিত্তিক ওয়েবসাইট ক্রিকবাজ। মে মাসে আগামী চার বছরের জন্য এশিয়া কাপের মিডিয়া স্বত্ব বিক্রির বিষয়ে বিডের আয়োজন করবে এসিসি। সেখানে পরবর্তী আসরগুলোর আয়োজক নির্ধারণ নিয়েও হবে সিদ্ধান্ত।

ক্রিকবাজের তথ্য অনুসারে, আগামী চারটি এশিয়া কাপের দুটি হবে ওয়ানডে ও দুটি হবে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে। সেই টুর্নামেন্টগুলো আয়োজনের সুযোগ হারাচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান। এই দুই দেশের বৈরিতার কারণে এখন দ্বিপাক্ষিক সিরিজগুলোও বন্ধ। এর ওপর আইসিসি ইভেন্টগুলোতে দেশ দুটির এমন গড়িমসিতে বেশ বিরক্ত এসিসি। মূলত, বিতর্ক এড়াতেই ভারত-পাকিস্তানকে আয়োজকের তালিকায় না রাখার সিদ্ধান্ত এসিসির

জানা গেছে, বিসিবি যদি এই বিডে অংশ নেয়, তাহলে আগামী এশিয়া কাপের আসরগুলোতে একক আয়োজক হওয়ার সুযোগ থাকবে বাংলাদেশের। আগের চার আসরের জন্য মিডিয়া স্বত্ব বিক্রি হয়েছিল প্রায় ৮০ মিলিয়ন ডলারে। এবার যে তা আরও বেড়ে দাঁড়াবে, তা তো বলাই যায়।

কালের চিঠি/ ফাহিম