রবিবার, ২১ জুলাই ২০২৪, ৬ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে চীনের প্রতি যে আহ্বান জানাল জার্মানি

ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে মিত্র রাশিয়াকে চাপ দিতে চীনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস।

মঙ্গলবার বেইজিংয়ে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে এ কথা জানান তিনি। খবর এএফপির।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) শেয়ার করা এক টুইটে জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, ‘চীনের কথাকে মূল্য দেয় রাশিয়া। তাই প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে রাশিয়াকে প্রভাবিত করতে বলেছি, যাতে ভ্লাদিমির পুতিন শেষ পর্যন্ত তার এই নির্বোধ যুদ্ধ বন্ধ করেন, সেনা প্রত্যাহার করেন এবং এই ভয়ানক যুদ্ধের অবসান ঘটান।

ইউক্রেন যুদ্ধের অবসানে সুইজারল্যান্ডে একটি শান্তি সম্মেলন আয়োজনের ব্যাপারেও চীনা প্রেসিডেন্ট সম্মত হয়েছেন বলে টুইটে জানান ওলাফ শলৎস।

রাশিয়ার এই সামরিক অভিযানের শুরু থেকেই বেইজিং বলে আসছে, এ সংঘাতে তারা কোনো পক্ষে নয়। তবে ইউক্রেনে রুশ হামলার নিন্দা জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে দেশটি বরং গত কয়েক বছরে মস্কো ও বেইজিংয়ের মধ্যে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কের পরিধি বেড়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর নিজেদের মধ্যে কৌশলগত অংশীদারত্ব আরও জোরদার করেছে তারা।

মঙ্গলবার চীনা প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনায় জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন এবং দেশটির সমরাস্ত্র ইউরোপের নিরাপত্তায় অত্যন্ত নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এগুলো সরাসরি ইউরোপের স্বার্থের মূল জায়গাগুলোকে প্রভাবিত করছে। এতে করে প্রকৃতপক্ষে পুরো বিশ্বব্যবস্থাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আর এসব পদক্ষেপ স্পষ্টতই জাতিসংঘের সনদের লঙ্ঘন।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সিসিটিভির খবরে বলা হয়েছে, জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে আলোচনায় সি চিন পিং ‘ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি ও চ্যালেঞ্জ’ মোকাবিলায় পারস্পরিক সম্পর্কের গুরুত্ব তুলে ধরেছেন।

তিনি বলেন, চীন ও জার্মানি হলো বিশ্বের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ।

ইউক্রেন সংকটকে নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়া থেকে রক্ষার জন্য সব পক্ষকে শান্তি ও স্থিতিশীলতার প্রতি সম্মান প্রদর্শনের ওপর জোর দেন চীনা প্রেসিডেন্ট।

কালের চিঠি / আশিকুর।

Tag :
Popular Post

কোটা বিরোধী আন্দোলনে ঢাকায় ২ শিক্ষার্থী নিহত

ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে চীনের প্রতি যে আহ্বান জানাল জার্মানি

Update Time : ০৩:৪২:৪১ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪

ইউক্রেন যুদ্ধ অবসানে মিত্র রাশিয়াকে চাপ দিতে চীনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন জার্মান চ্যান্সেলর ওলাফ শলৎস।

মঙ্গলবার বেইজিংয়ে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংয়ের সঙ্গে এক বৈঠক শেষে এ কথা জানান তিনি। খবর এএফপির।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম এক্সে (সাবেক টুইটার) শেয়ার করা এক টুইটে জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, ‘চীনের কথাকে মূল্য দেয় রাশিয়া। তাই প্রেসিডেন্ট শি জিন পিংকে রাশিয়াকে প্রভাবিত করতে বলেছি, যাতে ভ্লাদিমির পুতিন শেষ পর্যন্ত তার এই নির্বোধ যুদ্ধ বন্ধ করেন, সেনা প্রত্যাহার করেন এবং এই ভয়ানক যুদ্ধের অবসান ঘটান।

ইউক্রেন যুদ্ধের অবসানে সুইজারল্যান্ডে একটি শান্তি সম্মেলন আয়োজনের ব্যাপারেও চীনা প্রেসিডেন্ট সম্মত হয়েছেন বলে টুইটে জানান ওলাফ শলৎস।

রাশিয়ার এই সামরিক অভিযানের শুরু থেকেই বেইজিং বলে আসছে, এ সংঘাতে তারা কোনো পক্ষে নয়। তবে ইউক্রেনে রুশ হামলার নিন্দা জানাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে দেশটি বরং গত কয়েক বছরে মস্কো ও বেইজিংয়ের মধ্যে অর্থনৈতিক ও কূটনৈতিক সম্পর্কের পরিধি বেড়েছে। ইউক্রেন যুদ্ধ শুরুর পর নিজেদের মধ্যে কৌশলগত অংশীদারত্ব আরও জোরদার করেছে তারা।

মঙ্গলবার চীনা প্রেসিডেন্টের সঙ্গে আলোচনায় জার্মান চ্যান্সেলর বলেন, ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসন এবং দেশটির সমরাস্ত্র ইউরোপের নিরাপত্তায় অত্যন্ত নেতিবাচক প্রভাব ফেলছে। এগুলো সরাসরি ইউরোপের স্বার্থের মূল জায়গাগুলোকে প্রভাবিত করছে। এতে করে প্রকৃতপক্ষে পুরো বিশ্বব্যবস্থাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। আর এসব পদক্ষেপ স্পষ্টতই জাতিসংঘের সনদের লঙ্ঘন।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম সিসিটিভির খবরে বলা হয়েছে, জার্মান চ্যান্সেলরের সঙ্গে আলোচনায় সি চিন পিং ‘ক্রমবর্ধমান ঝুঁকি ও চ্যালেঞ্জ’ মোকাবিলায় পারস্পরিক সম্পর্কের গুরুত্ব তুলে ধরেছেন।

তিনি বলেন, চীন ও জার্মানি হলো বিশ্বের দ্বিতীয় ও তৃতীয় বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ।

ইউক্রেন সংকটকে নিয়ন্ত্রণের বাইরে যাওয়া থেকে রক্ষার জন্য সব পক্ষকে শান্তি ও স্থিতিশীলতার প্রতি সম্মান প্রদর্শনের ওপর জোর দেন চীনা প্রেসিডেন্ট।

কালের চিঠি / আশিকুর।