রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঈদের ছুটি থেকে ফিরেই শান্ত-নাঈমের সেঞ্চুরি ।

ঈদের ছুটি শেষ। আবারও মাঠের ক্রিকেটে ফিরেছেন ক্রিকেটাররা। তবে, সেটা ঘরোয়া লিগ দিয়ে। বিরতির পর আজ সোমবার (১৫ এপ্রিল) থেকে ফের মাঠে গড়িয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। ছুটি থেকে ফিরেই আজ দারুণ সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ। দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ পায় আবাহনী লিমিটেড।

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে ৪  উইকেটে ৩৪১ রানের পাহাড় গড়ে আবাহনী। যাতে বড় ভূমিকা রাখেন শান্ত ও নাঈম শেখ। ম্যাচটিতে আম্পায়ারিং নিয়ে বিতর্ক উঠলেও তা ছাপিয়ে নজর কেড়েছে দুই ব্যাটারের সেঞ্চুরি।

মূলত নাঈমের আউট নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক। মোহাম্মদ মিঠুনের করা বল ব্যাটেই লাগাতে পারলেন না নাঈম। পেছনের পায়ে বল লাগলেই ওঠে আবেদন। কিন্তু আম্পায়ার দিলেন নট আউট। তাতেই, প্রতিবাদ জানায় প্রাইম ব্যাংক। খেলা বন্ধও থাকে কিছুক্ষণ । প্রায় সাড়ে ৪ মিনিট বন্ধ থাকে ম্যাচ। কিন্তু তাতে লাভ হলো না। আম্পায়ার নিজের সিদ্ধান্তেই অটল থাকলেন। ৬৯ রানে টিকে যাওয়া নাঈম পরে তুলে নেন সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরি ছোঁয়া ইনিংসটি তিনি ১০৪ বলে ১০৫ রানে সাজান। ১০ চারের সঙ্গে যাতে ছিল ২টি ছক্কা।

নাঈমের পর রানের ফোয়ারা ছুটান শান্ত। তার সঙ্গী হিসেবে ছিলেন তাওহিদ হৃদয়। দুজনে মিলেই প্রাইম ব্যাংকের হতাশা বাড়ান। তৃতীয় উইকেটে স্রেফ ৬২ বলে তারা গড়েন ১২৩ রানের জুটি।

যদিও ব্যাটিংয়ের শুরুতে কিছুটা মন্থর ছিলেন শান্ত। সেঞ্চুরির আগে ৫০ ছুঁতে তার লাগে ৫৬ বল। তবে এর পরই তিনি হন চড়াও। কারণ পরের পঞ্চাশ করতে তিনি খেলেন মাত্র ২১ বল। তাতে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে পেয়ে যান ১১তম সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ১৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৮৫ বলে ১১৮ রানের ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়েন আবাহনীর এই তারকা। ইনিংসের বাকি কাজ করেন তাওহিদ। তিনি শেষ পর্যন্ত উপহার দেন ৬৫ রানের আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংস।

কালের চিঠি/ ফাহিম

Tag :

শ্রেণিকক্ষে যৌন হয়রানির অভিযোগ, ২ শিক্ষককে বরখাস্তের দাবিতে বিদ্যালয়ে তালা

ঈদের ছুটি থেকে ফিরেই শান্ত-নাঈমের সেঞ্চুরি ।

Update Time : ০৪:৩৭:২৩ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ এপ্রিল ২০২৪

ঈদের ছুটি শেষ। আবারও মাঠের ক্রিকেটে ফিরেছেন ক্রিকেটাররা। তবে, সেটা ঘরোয়া লিগ দিয়ে। বিরতির পর আজ সোমবার (১৫ এপ্রিল) থেকে ফের মাঠে গড়িয়েছে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ। ছুটি থেকে ফিরেই আজ দারুণ সেঞ্চুরি উপহার দিয়েছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ। দুই বাঁহাতি ব্যাটসম্যানের সেঞ্চুরিতে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের বিপক্ষে বিশাল সংগ্রহ পায় আবাহনী লিমিটেড।

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আজ প্রাইম ব্যাংকের বিপক্ষে ৪  উইকেটে ৩৪১ রানের পাহাড় গড়ে আবাহনী। যাতে বড় ভূমিকা রাখেন শান্ত ও নাঈম শেখ। ম্যাচটিতে আম্পায়ারিং নিয়ে বিতর্ক উঠলেও তা ছাপিয়ে নজর কেড়েছে দুই ব্যাটারের সেঞ্চুরি।

মূলত নাঈমের আউট নিয়েই শুরু হয় বিতর্ক। মোহাম্মদ মিঠুনের করা বল ব্যাটেই লাগাতে পারলেন না নাঈম। পেছনের পায়ে বল লাগলেই ওঠে আবেদন। কিন্তু আম্পায়ার দিলেন নট আউট। তাতেই, প্রতিবাদ জানায় প্রাইম ব্যাংক। খেলা বন্ধও থাকে কিছুক্ষণ । প্রায় সাড়ে ৪ মিনিট বন্ধ থাকে ম্যাচ। কিন্তু তাতে লাভ হলো না। আম্পায়ার নিজের সিদ্ধান্তেই অটল থাকলেন। ৬৯ রানে টিকে যাওয়া নাঈম পরে তুলে নেন সেঞ্চুরি। সেঞ্চুরি ছোঁয়া ইনিংসটি তিনি ১০৪ বলে ১০৫ রানে সাজান। ১০ চারের সঙ্গে যাতে ছিল ২টি ছক্কা।

নাঈমের পর রানের ফোয়ারা ছুটান শান্ত। তার সঙ্গী হিসেবে ছিলেন তাওহিদ হৃদয়। দুজনে মিলেই প্রাইম ব্যাংকের হতাশা বাড়ান। তৃতীয় উইকেটে স্রেফ ৬২ বলে তারা গড়েন ১২৩ রানের জুটি।

যদিও ব্যাটিংয়ের শুরুতে কিছুটা মন্থর ছিলেন শান্ত। সেঞ্চুরির আগে ৫০ ছুঁতে তার লাগে ৫৬ বল। তবে এর পরই তিনি হন চড়াও। কারণ পরের পঞ্চাশ করতে তিনি খেলেন মাত্র ২১ বল। তাতে লিস্ট ‘এ’ ক্রিকেটে পেয়ে যান ১১তম সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত ১৩ চার ও ৪ ছক্কায় ৮৫ বলে ১১৮ রানের ইনিংস খেলে মাঠ ছাড়েন আবাহনীর এই তারকা। ইনিংসের বাকি কাজ করেন তাওহিদ। তিনি শেষ পর্যন্ত উপহার দেন ৬৫ রানের আরেকটি দুর্দান্ত ইনিংস।

কালের চিঠি/ ফাহিম