শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চিড়িয়াখানায় হাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে কিশোরের মৃত্যু

ঈদ মানে খুশি ঈদ মানে আনন্দ। সেই ঈদের আনন্দ বিষাদে পরিণত হলো মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার হাতির মাহুত আজাদ পরিবারের। চিড়িয়াখানায় বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ হাতির পায়ে পিষ্ঠ হয়ে মারা গেছে আজাদের ১৮ বছরের ছেলে জাহিদ।

জানা যায়, হাতিটি বল নিয়ে খেলা দেখাচ্ছিল উপস্থিত শিশু-কিশোরদের। খেলা দেখাতে দেখাতে হঠাৎ করেই হাতিটির ফুটবল ছুটে বাইরে চলে যায়। তখন বলটি নিয়ে খেলা শুরু করে জাহিদ। এরপর হাতিটি ওই কিশোরকে তার লম্বা শুড় দিয়ে তুলে নিয়ে মাটিতে দু’বার আছাড় দেয় এবং পা দিয়ে পিষ্ট করে।

জাতীয় চিড়িয়াখানায় এই ঘটনা ঘটার পরে কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে যায় সেখানকার দর্শনার্থীরা। তারা বলেন, কর্তৃপক্ষকে যথাযথ নিরাপত্তা দিতে হবে। একইসাথে জনগণকে সচেতন হতে হবে।

এদিকে, জাতীয় চিড়িয়াখানার পরিচালক ড. মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার জানান, ঘটনাটি অপ্রত্যাশিত। একইসাথে দর্শনার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

চিড়িয়াখানায় গিয়ে নিরাপত্তা বেষ্টনি অতিক্রম না করারও আহ্বান জানান মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

চিড়িয়াখানায় হাতির পায়ে পিষ্ট হয়ে কিশোরের মৃত্যু

Update Time : ১২:৩১:২২ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ এপ্রিল ২০২৪

ঈদ মানে খুশি ঈদ মানে আনন্দ। সেই ঈদের আনন্দ বিষাদে পরিণত হলো মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানার হাতির মাহুত আজাদ পরিবারের। চিড়িয়াখানায় বৃহস্পতিবার (১১ এপ্রিল) বেলা সাড়ে ১১টা নাগাদ হাতির পায়ে পিষ্ঠ হয়ে মারা গেছে আজাদের ১৮ বছরের ছেলে জাহিদ।

জানা যায়, হাতিটি বল নিয়ে খেলা দেখাচ্ছিল উপস্থিত শিশু-কিশোরদের। খেলা দেখাতে দেখাতে হঠাৎ করেই হাতিটির ফুটবল ছুটে বাইরে চলে যায়। তখন বলটি নিয়ে খেলা শুরু করে জাহিদ। এরপর হাতিটি ওই কিশোরকে তার লম্বা শুড় দিয়ে তুলে নিয়ে মাটিতে দু’বার আছাড় দেয় এবং পা দিয়ে পিষ্ট করে।

জাতীয় চিড়িয়াখানায় এই ঘটনা ঘটার পরে কিছুটা আতঙ্কিত হয়ে যায় সেখানকার দর্শনার্থীরা। তারা বলেন, কর্তৃপক্ষকে যথাযথ নিরাপত্তা দিতে হবে। একইসাথে জনগণকে সচেতন হতে হবে।

এদিকে, জাতীয় চিড়িয়াখানার পরিচালক ড. মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার জানান, ঘটনাটি অপ্রত্যাশিত। একইসাথে দর্শনার্থীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

চিড়িয়াখানায় গিয়ে নিরাপত্তা বেষ্টনি অতিক্রম না করারও আহ্বান জানান মো. রফিকুল ইসলাম তালুকদার।

কালের চিঠি / আলিফ