সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাদুল্লাপুরে যাত্রীদের মারধরে ভ্যানচালকের মৃত্যু

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় যাত্রীদের মারধরে রাসেল মিয়া (৩০) নামে এক অটো ভ্যানচালকের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত রাসেল মিয়া উপজেলার খোর্দ্দকোমরপুর ইউনিয়নের খোর্দ্দকোমরপুর গ্রামের নান্দু শেখের ছেলে।

নিহতের স্বজনরা জানান, রাসেল একজন প্রতিবন্ধী। ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। সোমবার সন্ধ্যার পর সে যাত্রী নিয়ে রওনা হয়। এরপর ওই ইউনিয়নের মোজাহিদপুর এলাকায় যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পর ভাড়া নিয়ে তাদের সাথে বাগবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে যাত্রীরা উত্তেজিত হয়ে রাসেলকে বেধরক মারধর করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে মোজাহিদপুর গ্রামের তার শ্বশুর বাড়িতে নেয়া হয়। রাতে সেখানেই তার মৃত্যু হয় বলেও জানান তারা।

এ বিষয়ে সাদুল্লাপুর থানার ওসি শফিকুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে সোমবার রাত ১টার দিকে রাসেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।

Tag :

সাদুল্লাপুরে যাত্রীদের মারধরে ভ্যানচালকের মৃত্যু

Update Time : ১০:৫১:৫০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০২৪

গাইবান্ধা প্রতিনিধিঃ

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় যাত্রীদের মারধরে রাসেল মিয়া (৩০) নামে এক অটো ভ্যানচালকের মৃত্যু হয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে সাদুল্লাপুর থানা পুলিশ ও নিহতের স্বজনরা এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নিহত রাসেল মিয়া উপজেলার খোর্দ্দকোমরপুর ইউনিয়নের খোর্দ্দকোমরপুর গ্রামের নান্দু শেখের ছেলে।

নিহতের স্বজনরা জানান, রাসেল একজন প্রতিবন্ধী। ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করতেন। সোমবার সন্ধ্যার পর সে যাত্রী নিয়ে রওনা হয়। এরপর ওই ইউনিয়নের মোজাহিদপুর এলাকায় যাত্রীরা নেমে যাওয়ার পর ভাড়া নিয়ে তাদের সাথে বাগবিতন্ডা হয়। একপর্যায়ে যাত্রীরা উত্তেজিত হয়ে রাসেলকে বেধরক মারধর করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে মোজাহিদপুর গ্রামের তার শ্বশুর বাড়িতে নেয়া হয়। রাতে সেখানেই তার মৃত্যু হয় বলেও জানান তারা।

এ বিষয়ে সাদুল্লাপুর থানার ওসি শফিকুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে সোমবার রাত ১টার দিকে রাসেলের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান তিনি।