মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোস্তাফিজদের কাছে হেরে যে ব্যাখ্যা কলকাতা অধিনায়কের ।

মোস্তাফিজুর রহমানের চূড়ায় ওঠার দিনে হেসেখেলে জিতেছে চেন্নাই। অন্যদিকে হ্যাটট্রিক জয়ে আসর শুরু করার পর প্রথম হারের মুখ দেখেছে কলকাতা। দলের ঘুরে দাঁড়ানোর দিনে যুজবেন্দ্র চাহালকে টপকে চলতি আইপিএলের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি বোলার এখন টাইগার এই পেসার। কেকেআরের বিপক্ষে ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ৫ দশমিক ৫ ইকোনমিতে ২২ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করেন কাটার মাস্টার।

সোমবার (৮ এপ্রিল) এম চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাইয়ের বোলিং তোপে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩৭ রানের বেশি করতে পারেনি কলকাতা। জবাবে রুতুরাজ গায়কোয়াড়ের ফিফটিতে ১৪ বল হাতে রেখেই ৭ উইকেটের বড় জয় পায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এমন হারের পর কলকাতা অধিনায়ক শ্রেয়াশ আইয়ারের ভাষ্য, আমরা পাওয়ার প্লে-তে দারুণ খেলেছি। খুব ভালো শুরু হয়েছিল। কিন্তু পরের দিকে একের পর এক উইকেট হারিয়েছি। আমরা পাওয়ার প্লের পর পিচের চরিত্র ভালো করে বুঝতেই পারিনি। রান করাও খুব কঠিন হয়ে গিয়েছিল। চেন্নাই এই পরিবেশ ভালো রকম চেনে। ওরা নিজেদের পরিকল্পনা মতো বল করেছে।

তিনি যোগ করেন, প্রথম বল থেকেই বড় শট খেলা সহজ ছিল না। আমরা চাইছিলাম ধীরে ধীরে ইনিংস গড়তে। সেই পরিকল্পনাও ঠিক করে কাজে লাগাতে পারিনি। পাওয়ার প্লের পরে উইকেটের চরিত্র এতটাই বদলে যায় যে ধরতে পারিনি। একটা সময়ে ১৬০-১৭০ রান হয়ে যাবে বলে মনে হয়েছিল। কিন্তু ছন্দ হারিয়ে ফেলাতেই সব সমস্যা হয়ে যায়।

কালের চিঠি/ ফাহিম

Tag :

মোস্তাফিজদের কাছে হেরে যে ব্যাখ্যা কলকাতা অধিনায়কের ।

Update Time : ০৫:২৭:৫০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০২৪

মোস্তাফিজুর রহমানের চূড়ায় ওঠার দিনে হেসেখেলে জিতেছে চেন্নাই। অন্যদিকে হ্যাটট্রিক জয়ে আসর শুরু করার পর প্রথম হারের মুখ দেখেছে কলকাতা। দলের ঘুরে দাঁড়ানোর দিনে যুজবেন্দ্র চাহালকে টপকে চলতি আইপিএলের সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি বোলার এখন টাইগার এই পেসার। কেকেআরের বিপক্ষে ৪ ওভার হাত ঘুরিয়ে মাত্র ৫ দশমিক ৫ ইকোনমিতে ২২ রান খরচায় ২ উইকেট শিকার করেন কাটার মাস্টার।

সোমবার (৮ এপ্রিল) এম চিদাম্বরম স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাট করতে নেমে চেন্নাইয়ের বোলিং তোপে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৩৭ রানের বেশি করতে পারেনি কলকাতা। জবাবে রুতুরাজ গায়কোয়াড়ের ফিফটিতে ১৪ বল হাতে রেখেই ৭ উইকেটের বড় জয় পায় বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা।

এমন হারের পর কলকাতা অধিনায়ক শ্রেয়াশ আইয়ারের ভাষ্য, আমরা পাওয়ার প্লে-তে দারুণ খেলেছি। খুব ভালো শুরু হয়েছিল। কিন্তু পরের দিকে একের পর এক উইকেট হারিয়েছি। আমরা পাওয়ার প্লের পর পিচের চরিত্র ভালো করে বুঝতেই পারিনি। রান করাও খুব কঠিন হয়ে গিয়েছিল। চেন্নাই এই পরিবেশ ভালো রকম চেনে। ওরা নিজেদের পরিকল্পনা মতো বল করেছে।

তিনি যোগ করেন, প্রথম বল থেকেই বড় শট খেলা সহজ ছিল না। আমরা চাইছিলাম ধীরে ধীরে ইনিংস গড়তে। সেই পরিকল্পনাও ঠিক করে কাজে লাগাতে পারিনি। পাওয়ার প্লের পরে উইকেটের চরিত্র এতটাই বদলে যায় যে ধরতে পারিনি। একটা সময়ে ১৬০-১৭০ রান হয়ে যাবে বলে মনে হয়েছিল। কিন্তু ছন্দ হারিয়ে ফেলাতেই সব সমস্যা হয়ে যায়।

কালের চিঠি/ ফাহিম