শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ময়মনসিংহে ঈদযাত্রায় একই পরিবারের তিনজনসহ সড়কে নিহত ৮

ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ ৮ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানসহ ৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। বাকি দুইজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। হতাহতরা সকলেই পিকআপ ও সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী বলে পুলিশ জানিয়েছে। তারা ঈদের ছটিতে বাড়ি ফিরছিলেন।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মাঈন উদ্দিন জানান, ময়মনসিংহ-মুক্তাগাছা সড়কের ল্যাংড়াবাজার এলাকায় মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে বাস ও মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে নিহত হন শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার দিঘীরপাড় এলাকার লুৎফর রহমান (৩০), তার স্ত্রী শাহনাজ (২৫) ও ছেলে মাহিত (৪)।

ওসি জানান, ঘটনাস্থলে শিশু মাহিত ও গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তির পর স্বামী-স্ত্রী মারা যান। তাদের অপর ছেলে মোজাহিদকে (৬) আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত স্বামী-স্ত্রী দুজনেই ভালুকার মাস্টারবাড়ী এলাকার একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফিরছিলেন তারা।

এদিকে, ত্রিশাল সদর ও বালিপাড়া এলাকায় পৃথক দুই সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন।

ত্রিশাল থানার ওসি কামাল হোসেন জানান, দুপুর ১২টার দিকে ত্রিশাল-বালিপাড়া সড়কে শালবন পরিবহনের একটি বাসের সাথে অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই দুইজন পুরুষ মারা গেছে। তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে ত্রিশাল সদরে মঙ্গলবার বাস ও পিকআপের সংঘর্ষে আপেল মিয়া (৩০) ও মারুফ (১৮) নামে দুইজন মারা গেছে। তাদের বাড়ি নান্দাইল উপজেলায়। এছাড়া তারাকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় আবুল বাশার (৬০) নামে পথচারী মারা গেছেন।

কালের চিঠি / আশিকুর।

Tag :

ময়মনসিংহে ঈদযাত্রায় একই পরিবারের তিনজনসহ সড়কে নিহত ৮

Update Time : ০৫:৩০:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৯ এপ্রিল ২০২৪

ময়মনসিংহে পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় একই পরিবারের তিনজনসহ ৮ জন মারা গেছেন। এদের মধ্যে স্বামী-স্ত্রী ও সন্তানসহ ৬ জনের পরিচয় পাওয়া গেছে। বাকি দুইজনের পরিচয় পাওয়া যায়নি। হতাহতরা সকলেই পিকআপ ও সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী বলে পুলিশ জানিয়েছে। তারা ঈদের ছটিতে বাড়ি ফিরছিলেন।

কোতোয়ালী মডেল থানার ওসি মাঈন উদ্দিন জানান, ময়মনসিংহ-মুক্তাগাছা সড়কের ল্যাংড়াবাজার এলাকায় মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে বাস ও মাহেন্দ্রর মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে নিহত হন শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার দিঘীরপাড় এলাকার লুৎফর রহমান (৩০), তার স্ত্রী শাহনাজ (২৫) ও ছেলে মাহিত (৪)।

ওসি জানান, ঘটনাস্থলে শিশু মাহিত ও গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তির পর স্বামী-স্ত্রী মারা যান। তাদের অপর ছেলে মোজাহিদকে (৬) আহত অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত স্বামী-স্ত্রী দুজনেই ভালুকার মাস্টারবাড়ী এলাকার একটি গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। ঈদের ছুটিতে বাড়ি ফিরছিলেন তারা।

এদিকে, ত্রিশাল সদর ও বালিপাড়া এলাকায় পৃথক দুই সড়ক দুর্ঘটনায় ৪ জন নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে বেশ কয়েকজন।

ত্রিশাল থানার ওসি কামাল হোসেন জানান, দুপুর ১২টার দিকে ত্রিশাল-বালিপাড়া সড়কে শালবন পরিবহনের একটি বাসের সাথে অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই দুইজন পুরুষ মারা গেছে। তাদের পরিচয় পাওয়া যায়নি।

অপরদিকে ত্রিশাল সদরে মঙ্গলবার বাস ও পিকআপের সংঘর্ষে আপেল মিয়া (৩০) ও মারুফ (১৮) নামে দুইজন মারা গেছে। তাদের বাড়ি নান্দাইল উপজেলায়। এছাড়া তারাকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় আবুল বাশার (৬০) নামে পথচারী মারা গেছেন।

কালের চিঠি / আশিকুর।