রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সম্মান না পেয়ে জাতীয় দলের দায়িত্ব ছাড়লেন সুজন

ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপেও খালেদ মাহমুদ সুজন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপনের বিশেষ অনুরোধে শেষ মুহুর্তে টিম ডিরেক্টরের দায়িত্ব নেন। তবে, দলের সঙ্গে থাকলেও নীতি নির্ধারনী সিদ্ধান্তে তার তেমন ক্ষমতা ছিল না। সামনে আরও একটি বিশ্বকাপ। এর আগেই জাতীয় দলের দায়িত্ব থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন এই সাবেক ক্রিকেটার।

গতকাল রোববার (৭ এপ্রিল) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের খেলা শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেন সুজন। ভবিষ্যতে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নিবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে অনেকটা ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মনে হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটের আর সমাধান না। বাংলাদেশের আরও বড় সমাধান আছে। আমার আর বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোনো দায়িত্বে আগ্রহও নেই। গত বিশ্বকাপে আমি যা করেছি, মনে করি ওটা আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সঙ্গে যায় না আসলে। হয়তো বা আমি অতো বড় কোচ না, অতো কিছু জানিও না ক্রিকেট নিয়ে। তারপরও মনে করি আমার সম্মান আছে, গত বিশ্বকাপে আমি সেই সম্মানটা পাইনি। আমি আর এই কাজ করতেও চাইনা।’

সুজন আরও বলেন, ‘আমি এখন আর ২৮-২৯ বছরের ছেলে নই, আমার সম্মানটা এখন আমাকে রাখতে হবে। পাপন ভাইকে আগের মতোই সম্মান করি। কিন্তু আমি বিনয়ের সঙ্গে অনুরোধ করি পাপন ভাইকে যেন উনি আমাকে আর এ বিষয়ে কোনো কাজ করতে না বলেন। আমি তো ট্যুর করতে যাই না বাংলাদেশ দলের সঙ্গে। আমি ট্যুর পার্টি হতে চাই না। বিদেশ অনেক ঘুরেছি, বিদেশ ভ্রমণের কোনো ইচ্ছাই নাই আমার।’

কালের চিঠি / ফাহিম

Tag :

সম্মান না পেয়ে জাতীয় দলের দায়িত্ব ছাড়লেন সুজন

Update Time : ০৫:২৭:৩৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ এপ্রিল ২০২৪

ভারতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে বিশ্বকাপেও খালেদ মাহমুদ সুজন বিসিবি প্রধান নাজমুল হাসান পাপনের বিশেষ অনুরোধে শেষ মুহুর্তে টিম ডিরেক্টরের দায়িত্ব নেন। তবে, দলের সঙ্গে থাকলেও নীতি নির্ধারনী সিদ্ধান্তে তার তেমন ক্ষমতা ছিল না। সামনে আরও একটি বিশ্বকাপ। এর আগেই জাতীয় দলের দায়িত্ব থেকে নিজেকে সরিয়ে নিলেন এই সাবেক ক্রিকেটার।

গতকাল রোববার (৭ এপ্রিল) ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের খেলা শেষে গণমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে কথা বলেন সুজন। ভবিষ্যতে বাংলাদেশ দলের দায়িত্ব নিবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে অনেকটা ক্ষোভ প্রকাশ করেন সাবেক এই ক্রিকেটার।

এই বিষয়ে তিনি বলেন, ‘আমি মনে হয় বাংলাদেশ ক্রিকেটের আর সমাধান না। বাংলাদেশের আরও বড় সমাধান আছে। আমার আর বাংলাদেশ জাতীয় দলের কোনো দায়িত্বে আগ্রহও নেই। গত বিশ্বকাপে আমি যা করেছি, মনে করি ওটা আমার ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সঙ্গে যায় না আসলে। হয়তো বা আমি অতো বড় কোচ না, অতো কিছু জানিও না ক্রিকেট নিয়ে। তারপরও মনে করি আমার সম্মান আছে, গত বিশ্বকাপে আমি সেই সম্মানটা পাইনি। আমি আর এই কাজ করতেও চাইনা।’

সুজন আরও বলেন, ‘আমি এখন আর ২৮-২৯ বছরের ছেলে নই, আমার সম্মানটা এখন আমাকে রাখতে হবে। পাপন ভাইকে আগের মতোই সম্মান করি। কিন্তু আমি বিনয়ের সঙ্গে অনুরোধ করি পাপন ভাইকে যেন উনি আমাকে আর এ বিষয়ে কোনো কাজ করতে না বলেন। আমি তো ট্যুর করতে যাই না বাংলাদেশ দলের সঙ্গে। আমি ট্যুর পার্টি হতে চাই না। বিদেশ অনেক ঘুরেছি, বিদেশ ভ্রমণের কোনো ইচ্ছাই নাই আমার।’

কালের চিঠি / ফাহিম