রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চট্টগ্রামে লুণ্ঠিত ও ছিনতাইয়ের ৫ লাখ টাকা উদ্ধার

চট্টগ্রাম মহানগরীর পাহাড়তলী থানাধীন আলিফ গলিতে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে লুণ্ঠন হওয়া ৫ লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে ব্যবসায়ী নুর আলী ব্যাংক থেকে টাকা তুলে অফিসে যাওয়ার পথে দেশীয় অস্ত্র ঠেকিয়ে নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। এ ঘটনায় একই দিন রাতে পাহাড়তলী থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

রোববার রাতে গোয়েন্দা ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ওসি কেপায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে এসআই মনিরসহ সঙ্গীয় ফোর্স শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ছিনতাই হওয়া ৫,৪৩,৯০০/ টাকাসহ মোট চারজন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতার ছিনতাইকারীরা হলেন-মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, নুর হোসেন, রশিদা বেগম ও রহিমা বেগম। উপস্থিত সাক্ষীদের সামনে তাদের হেফাজত থেকে নগদ টাকা ভর্তি ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে। আসামিরা পাহাড়তলী থানাধীন বিটাক এলাকায় ভাড়াঘরে বসবাস করে আসছে।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী নুর আলী বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় ও পাহাড়তলী থানা পুলিশের প্রতি আমি খুবই কৃতজ্ঞ।তারা দ্রুত সময়ে আমার ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার ও আসামী গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

এ বিষয়ে পাহাড়তলী থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহ যুগান্তরকে বলেন, শুক্রবার মামলা রুজু করার পর আমি নিজে ফোর্স নিয়ে মাঠে নেমে পড়ি। এই ছিনতাইকারীরা খুবই পেশাদার ছিনতাইকারী।রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

কালের চিঠি / আশিকুর।

Tag :

চট্টগ্রামে লুণ্ঠিত ও ছিনতাইয়ের ৫ লাখ টাকা উদ্ধার

Update Time : ০৪:১৪:১৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ৭ এপ্রিল ২০২৪

চট্টগ্রাম মহানগরীর পাহাড়তলী থানাধীন আলিফ গলিতে ব্যবসায়ীর কাছ থেকে লুণ্ঠন হওয়া ৫ লক্ষাধিক টাকা উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

গত বৃহস্পতিবার বিকালে ব্যবসায়ী নুর আলী ব্যাংক থেকে টাকা তুলে অফিসে যাওয়ার পথে দেশীয় অস্ত্র ঠেকিয়ে নগদ টাকা লুট করে নিয়ে যায় ছিনতাইকারীরা। এ ঘটনায় একই দিন রাতে পাহাড়তলী থানায় মামলা দায়ের করা হয়।

রোববার রাতে গোয়েন্দা ও তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করে ওসি কেপায়েত উল্লাহর নেতৃত্বে এসআই মনিরসহ সঙ্গীয় ফোর্স শহরের বিভিন্ন জায়গায় অভিযান পরিচালনা করে ছিনতাই হওয়া ৫,৪৩,৯০০/ টাকাসহ মোট চারজন ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়।

গ্রেফতার ছিনতাইকারীরা হলেন-মোহাম্মদ মাসুদুর রহমান, নুর হোসেন, রশিদা বেগম ও রহিমা বেগম। উপস্থিত সাক্ষীদের সামনে তাদের হেফাজত থেকে নগদ টাকা ভর্তি ব্যাগ উদ্ধার করা হয়েছে। আসামিরা পাহাড়তলী থানাধীন বিটাক এলাকায় ভাড়াঘরে বসবাস করে আসছে।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী নুর আলী বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর পুলিশ কমিশনার কৃষ্ণ পদ রায় ও পাহাড়তলী থানা পুলিশের প্রতি আমি খুবই কৃতজ্ঞ।তারা দ্রুত সময়ে আমার ছিনতাইকৃত টাকা উদ্ধার ও আসামী গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন।

এ বিষয়ে পাহাড়তলী থানার ওসি কেপায়েত উল্লাহ যুগান্তরকে বলেন, শুক্রবার মামলা রুজু করার পর আমি নিজে ফোর্স নিয়ে মাঠে নেমে পড়ি। এই ছিনতাইকারীরা খুবই পেশাদার ছিনতাইকারী।রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে।

কালের চিঠি / আশিকুর।