মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খুনের ২৪ ঘন্টার মধ্যেই প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে আরপিএমপি হারাগাছ থানা পুলিশ।

রতন রায়হান, রংপুর।

সবজি বিক্রেতা সোলায়মান (৬০) হত্যা মামলার প্রধান আসামি শহীদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে আরপিএমপি হারাগাছ থানা পুলিশ। রংপুরের হারাগাছ থানাধীন সারাই ইউনিয়ন এর ৯ নং ওয়ার্ডস্থ কাঁচু আলুটারী বিলকুলের পুকুর পাড়ে ঘটনাটি ঘটে। অদ্য সোমবার ০১/০৪/২৪ ইং তারিখে সংবাদ প্রাপ্তির পর আরপিএমপি উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) জনাব আবু মারুফ হোসেন মহোদয়ের সার্বিক দিক নির্দেশনায় ও অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার জনাব উৎপল কুমার রায় মহোদয়ের অপারেশন পরিকল্পনায়, সহকারী পুলিশ কমিশনার (মাহিগন্জ জোন) জনাব সুব্রত ব্যানার্জীর ও অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলামের নেতৃত্বে, এসআই কামাল হোসেন, এসআই কামনাশীষ রায়, এসআই সিরাজুল ইসলাম ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে ১নং আসামী মোঃ শহীদুল ইসলাম (৪০) পিতা-মোঃ আব্দুল গনি মিয়া, সাং- কাঁচু আলুটারী, থানা – হারাগাছ আরপিএমপি রংপুরকে মাহিগন্জ থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায়, সোলায়মান ও শহীদুল আরপিএমপি হারাগাছ থানাধীন কাঁচু আলুটারী গ্রামের বাসিন্দা এবং দুজনেই সবজি বিক্রেতা। গ্রামে শাক-সবজি বেঁচা-বিক্রি নিয়ে দুজনের মতোবিরোধ তৈরি হয়। সোমবার সকালে ১০ ঘটিকার সময় সোলায়মান শাক-সবজি বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ভ্যান গাড়ি নিয়ে বের হয়। কাঁচু আলুটারী বিলকুলের পুকুর পাড় নামক জায়গায় পৌঁছালে সোলায়মানের পথরোধ করে অন্য সবজি বিক্রেতা শহীদুল। তারপর সবজি বিক্রয়ের মতো বিরোধকে কেন্দ্র করে সোলায়মানকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুসি ও মারপিট করে শহীদুল ও তার সহযোগী নজরুল ইসলাম নাজু। বেধড়ক মারপিটের কারণে ঘটনাস্থলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সোলায়মান। পরে স্বজনরা সোলায়মানের মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে হারাগাছ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠায়। রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নিহত সোলায়মানের ছেলে বাদী হয়ে দুজনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। হত্যা মামলার প্রধান আসামী শহীদুল ইসলাম কে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Tag :

খুনের ২৪ ঘন্টার মধ্যেই প্রধান আসামীকে গ্রেফতার করেছে আরপিএমপি হারাগাছ থানা পুলিশ।

Update Time : ০৫:৫৮:০৮ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

রতন রায়হান, রংপুর।

সবজি বিক্রেতা সোলায়মান (৬০) হত্যা মামলার প্রধান আসামি শহীদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে আরপিএমপি হারাগাছ থানা পুলিশ। রংপুরের হারাগাছ থানাধীন সারাই ইউনিয়ন এর ৯ নং ওয়ার্ডস্থ কাঁচু আলুটারী বিলকুলের পুকুর পাড়ে ঘটনাটি ঘটে। অদ্য সোমবার ০১/০৪/২৪ ইং তারিখে সংবাদ প্রাপ্তির পর আরপিএমপি উপ-পুলিশ কমিশনার (অপরাধ) জনাব আবু মারুফ হোসেন মহোদয়ের সার্বিক দিক নির্দেশনায় ও অতিরিক্ত উপ-পুলিশ কমিশনার জনাব উৎপল কুমার রায় মহোদয়ের অপারেশন পরিকল্পনায়, সহকারী পুলিশ কমিশনার (মাহিগন্জ জোন) জনাব সুব্রত ব্যানার্জীর ও অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলামের নেতৃত্বে, এসআই কামাল হোসেন, এসআই কামনাশীষ রায়, এসআই সিরাজুল ইসলাম ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে ১নং আসামী মোঃ শহীদুল ইসলাম (৪০) পিতা-মোঃ আব্দুল গনি মিয়া, সাং- কাঁচু আলুটারী, থানা – হারাগাছ আরপিএমপি রংপুরকে মাহিগন্জ থানা এলাকা হতে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশ জানায়, সোলায়মান ও শহীদুল আরপিএমপি হারাগাছ থানাধীন কাঁচু আলুটারী গ্রামের বাসিন্দা এবং দুজনেই সবজি বিক্রেতা। গ্রামে শাক-সবজি বেঁচা-বিক্রি নিয়ে দুজনের মতোবিরোধ তৈরি হয়। সোমবার সকালে ১০ ঘটিকার সময় সোলায়মান শাক-সবজি বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে ভ্যান গাড়ি নিয়ে বের হয়। কাঁচু আলুটারী বিলকুলের পুকুর পাড় নামক জায়গায় পৌঁছালে সোলায়মানের পথরোধ করে অন্য সবজি বিক্রেতা শহীদুল। তারপর সবজি বিক্রয়ের মতো বিরোধকে কেন্দ্র করে সোলায়মানকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুসি ও মারপিট করে শহীদুল ও তার সহযোগী নজরুল ইসলাম নাজু। বেধড়ক মারপিটের কারণে ঘটনাস্থলে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন সোলায়মান। পরে স্বজনরা সোলায়মানের মরদেহ বাড়িতে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে হারাগাছ থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগে পাঠায়। রংপুর মেট্রোপলিটন হারাগাছ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ হারেসুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় নিহত সোলায়মানের ছেলে বাদী হয়ে দুজনকে আসামী করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছে। হত্যা মামলার প্রধান আসামী শহীদুল ইসলাম কে গ্রেফতার করা হয়েছে। অপর জনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।