রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হায়দরাবাদের রেকর্ড রানের ম্যাচে ৩১ রানে হারলো মুম্বাই

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৭ তম আসরের অষ্টম ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে ৩১ রানে হারিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। টুনামেন্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৭৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২৪৬ রানে থামে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

পাহারসম টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই মারকুটে ব্যাটিং করতে থাকেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুই ওপেনার রোহিত শার্মা ও ঈশান কিষান। তবে খুব বেশীক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি এই দুই ওপেনার। ব্যক্তিগত ৩৪ রানে শাহবাজ আহমেদের বলে আউট হন ঈশান কিষান। এরপর ব্যাটিংয়ে আসেন নামান ধীর। ১২ বলে ৩০ রানের একটি ক্যামিও ইনিংস খেলেন তিনি। এরপর ব্যক্তিগত ২৬ রানে প্যাট কামিন্সের বলে সাজঘরে ফেরেন রোহিত শার্মা। তারপর ক্রিজে এসে ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিলক ভার্মা। সাজঘরে ফেরার আগে ৬টি ছক্কা ও ২ চারে ৩৪ বলে ৬৪ রান নেন তিনি।

জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৯৩ রান দরকার ছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের। ক্রিজে ছিলেন টিম ডেভিড ও হার্দিক পান্ডিয়া। জয়দেব উনাদকটের সেই ওভারে মাত্র ৫ রান আসে। পরের ওভারে টিম ডেভিডের দুই ছক্কা ও এক চারে আসে ২০ রান। শেষ তিন ওভারে দলটির দরকার ৬৮ রান। ১৮ তম ওভারে বোলিংয়ে আসেন জয়দেব উনাদকট। সেই ওভারের প্রথম বলে একটি চার ও চতুর্থ বলে ছক্কা মারেন টিম ডেভিড। ওভারের শেষ বলে আউট হন হার্দিক পান্ডিয়া। তখন জয়ের জন্য সমীকরণ দাঁড়ায় ১২ বলে ৫৪ রান। ১৯ তম ওভারে বল হাতে আসেন প্যাট কামিন্স। সেই ওভারে আসে মাত্র ৭ রান। শেষ ওভারে শেপহার্ড দুটি চার ও একটি ছক্কা মারলেও জয়ের বন্দর থেকে খানিকটা দূরেই থামতে হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ ২৭৭ রানের সংগ্রহ পায় সানরাইজ হায়দরাবাদ। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই মুম্বাইয়ের বোলারদের শাসন করতে থাকে হায়দরাবাদ। দুই ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও ট্র্যভিস হেড প্রথম থেকেই মারমুখী ভঙ্গিমায় ছিলেন। দলীয় ৪৫ রানে পঞ্চম ওভারে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। ব্যক্তিগত ১১ রানে হার্দিক পান্ডিয়ার বলে টিম ডেভিডের তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন আগারওয়াল। এরপর দলীয় ১১৩ ও ব্যক্তিগত ৬২ রানে সাজঘরে ফেরেন হেড। অভিষেক শর্মা খেলেন ২৩ বলে ৬৩ রানের এক টর্নেডো ইনিংস। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো উইকেট পড়েনি হায়দরাবাদের। ২৮ বলে ৪২ রান করে এইডেন মার্করাম ও ৩৪ বলে ৮০ রান করে অপরাজিত থাকেন প্রোটিয়া ব্যাটার ক্লাসেন। ক্লাসেনের ইনিংসে ছিল চারটি ৪ ও সাতটি ৬।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

হায়দরাবাদের রেকর্ড রানের ম্যাচে ৩১ রানে হারলো মুম্বাই

Update Time : ০৩:১৫:০৯ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৮ মার্চ ২০২৪

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) ১৭ তম আসরের অষ্টম ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ানসকে ৩১ রানে হারিয়েছে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। টুনামেন্টের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ২৭৮ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে ২৪৬ রানে থামে মুম্বাই ইন্ডিয়ানস।

পাহারসম টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই মারকুটে ব্যাটিং করতে থাকেন মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের দুই ওপেনার রোহিত শার্মা ও ঈশান কিষান। তবে খুব বেশীক্ষণ ক্রিজে থাকতে পারেননি এই দুই ওপেনার। ব্যক্তিগত ৩৪ রানে শাহবাজ আহমেদের বলে আউট হন ঈশান কিষান। এরপর ব্যাটিংয়ে আসেন নামান ধীর। ১২ বলে ৩০ রানের একটি ক্যামিও ইনিংস খেলেন তিনি। এরপর ব্যক্তিগত ২৬ রানে প্যাট কামিন্সের বলে সাজঘরে ফেরেন রোহিত শার্মা। তারপর ক্রিজে এসে ঝড়ো ইনিংস খেলেন তিলক ভার্মা। সাজঘরে ফেরার আগে ৬টি ছক্কা ও ২ চারে ৩৪ বলে ৬৪ রান নেন তিনি।

জয়ের জন্য শেষ ৫ ওভারে ৯৩ রান দরকার ছিল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের। ক্রিজে ছিলেন টিম ডেভিড ও হার্দিক পান্ডিয়া। জয়দেব উনাদকটের সেই ওভারে মাত্র ৫ রান আসে। পরের ওভারে টিম ডেভিডের দুই ছক্কা ও এক চারে আসে ২০ রান। শেষ তিন ওভারে দলটির দরকার ৬৮ রান। ১৮ তম ওভারে বোলিংয়ে আসেন জয়দেব উনাদকট। সেই ওভারের প্রথম বলে একটি চার ও চতুর্থ বলে ছক্কা মারেন টিম ডেভিড। ওভারের শেষ বলে আউট হন হার্দিক পান্ডিয়া। তখন জয়ের জন্য সমীকরণ দাঁড়ায় ১২ বলে ৫৪ রান। ১৯ তম ওভারে বল হাতে আসেন প্যাট কামিন্স। সেই ওভারে আসে মাত্র ৭ রান। শেষ ওভারে শেপহার্ড দুটি চার ও একটি ছক্কা মারলেও জয়ের বন্দর থেকে খানিকটা দূরেই থামতে হয় মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে।

এর আগে ব্যাট করতে নেমে আইপিএল ইতিহাসের সর্বোচ্চ ২৭৭ রানের সংগ্রহ পায় সানরাইজ হায়দরাবাদ। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরু থেকেই মুম্বাইয়ের বোলারদের শাসন করতে থাকে হায়দরাবাদ। দুই ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও ট্র্যভিস হেড প্রথম থেকেই মারমুখী ভঙ্গিমায় ছিলেন। দলীয় ৪৫ রানে পঞ্চম ওভারে প্রথম উইকেটের পতন ঘটে। ব্যক্তিগত ১১ রানে হার্দিক পান্ডিয়ার বলে টিম ডেভিডের তালুবন্দি হয়ে মাঠ ছাড়েন আগারওয়াল। এরপর দলীয় ১১৩ ও ব্যক্তিগত ৬২ রানে সাজঘরে ফেরেন হেড। অভিষেক শর্মা খেলেন ২৩ বলে ৬৩ রানের এক টর্নেডো ইনিংস। ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো উইকেট পড়েনি হায়দরাবাদের। ২৮ বলে ৪২ রান করে এইডেন মার্করাম ও ৩৪ বলে ৮০ রান করে অপরাজিত থাকেন প্রোটিয়া ব্যাটার ক্লাসেন। ক্লাসেনের ইনিংসে ছিল চারটি ৪ ও সাতটি ৬।

কালের চিঠি / আলিফ