সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ধানমণ্ডির টুইন পিক টাওয়ারের ১২ রেস্তোরাঁ সিলগালা

 

রাজধানীর ধানমন্ডিতে সাত মসজিদ সড়কে গাওসিয়া টুইন পিক টাওয়ারে অনুমোদনহীন ও নকশা বহির্ভূতভাবে নির্মাণ করা ১২টি রেস্তোরাঁ সিলগালা করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। একই সঙ্গে জরিমানা করা হয়েছে একটি রেস্টুরেন্টকে।

আজ সোমবার (৪ মার্চ) সকালে রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই ভবনে অভিযান চালায়।

ভবনটি বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য ডিজাইন করা হলেও সেখানে অনুমোদন ছাড়া রেস্তোরাঁ পরিচালনার কারণে সেগুলো সিলগালা করা হয় বলে গণমাধ্যমকে জানান রাজউকের পরিচালক (জোন-৩) উপসচিব তাজিনা সারোয়ার।

এর আগে, সকাল ১১টায় এই ভবনে অভিযান পরিচালনা শুরু করে রাজউকের ভ্রাম্যমান আদালত। পরে ভবনটির ছাদে নকশা বহির্ভূতভাবে গড়ে তোলা ‘রেট্রো লাইভ কিচেন’ নামের রুফটপ রেস্টুরেন্টটি ভেঙ্গে দেয়া হয়।

অভিযান শেষে তাজিনা সারোয়ার সাংবাদিকদের বলেন, এটি মূলত ‘এফ’ ক্যাটাগরির ভবন। এই ক্যাটাগরি অনুসারে ভবনটি অফিস হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে। কিন্তু আমরা পরিদর্শনে মাত্র দুই ফ্লোরের কিছু অংশ অফিস হিসেবে বরাদ্দ দেয়ার বিষয়টি দেখলাম। বাকি অংশগুলোতে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে ১২ থেকে ১৫টি রেস্টুরেন্টকে ভাড়া দেয়া হয়েছে। সঙ্গে ওষুধ ও কাপড়ের দোকানও পেয়েছি।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি রাত পৌনে ১০টার দিকে গ্রিন কোজি কটেজ ভবনে আগুন লাগে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৬ জন নিহত হয়েছেন। রাজধানীর বেইলি রোডসহ সব আবাসিক স্থাপনায় রেস্টুরেন্ট বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। একইসঙ্গে রিটে বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে প্রকৃত দায়ীদের গ্রেফতার ও আহত, নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

ধানমণ্ডির টুইন পিক টাওয়ারের ১২ রেস্তোরাঁ সিলগালা

Update Time : ১১:৪৯:০০ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪

 

রাজধানীর ধানমন্ডিতে সাত মসজিদ সড়কে গাওসিয়া টুইন পিক টাওয়ারে অনুমোদনহীন ও নকশা বহির্ভূতভাবে নির্মাণ করা ১২টি রেস্তোরাঁ সিলগালা করেছে রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক)। একই সঙ্গে জরিমানা করা হয়েছে একটি রেস্টুরেন্টকে।

আজ সোমবার (৪ মার্চ) সকালে রাজউকের ভ্রাম্যমাণ আদালত ওই ভবনে অভিযান চালায়।

ভবনটি বাণিজ্যিক ব্যবহারের জন্য ডিজাইন করা হলেও সেখানে অনুমোদন ছাড়া রেস্তোরাঁ পরিচালনার কারণে সেগুলো সিলগালা করা হয় বলে গণমাধ্যমকে জানান রাজউকের পরিচালক (জোন-৩) উপসচিব তাজিনা সারোয়ার।

এর আগে, সকাল ১১টায় এই ভবনে অভিযান পরিচালনা শুরু করে রাজউকের ভ্রাম্যমান আদালত। পরে ভবনটির ছাদে নকশা বহির্ভূতভাবে গড়ে তোলা ‘রেট্রো লাইভ কিচেন’ নামের রুফটপ রেস্টুরেন্টটি ভেঙ্গে দেয়া হয়।

অভিযান শেষে তাজিনা সারোয়ার সাংবাদিকদের বলেন, এটি মূলত ‘এফ’ ক্যাটাগরির ভবন। এই ক্যাটাগরি অনুসারে ভবনটি অফিস হিসেবে ব্যবহার করতে পারবে। কিন্তু আমরা পরিদর্শনে মাত্র দুই ফ্লোরের কিছু অংশ অফিস হিসেবে বরাদ্দ দেয়ার বিষয়টি দেখলাম। বাকি অংশগুলোতে নিয়মের ব্যত্যয় ঘটিয়ে ১২ থেকে ১৫টি রেস্টুরেন্টকে ভাড়া দেয়া হয়েছে। সঙ্গে ওষুধ ও কাপড়ের দোকানও পেয়েছি।

প্রসঙ্গত, গত ২৯ ফেব্রুয়ারি রাত পৌনে ১০টার দিকে গ্রিন কোজি কটেজ ভবনে আগুন লাগে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৬ জন নিহত হয়েছেন। রাজধানীর বেইলি রোডসহ সব আবাসিক স্থাপনায় রেস্টুরেন্ট বন্ধের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। একইসঙ্গে রিটে বেইলি রোডে অগ্নিকাণ্ডে প্রকৃত দায়ীদের গ্রেফতার ও আহত, নিহতদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

কালের চিঠি / আলিফ