শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বগুড়ায় আগুনে পুড়ে এক বৃদ্ধার মৃত্যু

বগুড়ার গাবতলীতে আগুনে পুড়ে বৃদ্ধ মহিলাসহ তিনটি গরু দুটি পরিবারের ঘরবাড়ি আসবাবপত্র ভূস্মিভূত হয়েছে। নিহত বৃদ্ধার নাম কাবাসী বেওয়া(৭৫)।

মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের সুবাদ বাজারের দক্ষিণ পাশে কলাকোপা মন্ডলপাড়া গ্রামে। নিহত বৃদ্ধা ওই গ্রামের মৃত সমিরুদ্দিন ফকিরের স্ত্রী গাবতলী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন গাবতলী উপজেলা নিবাহী কমকর্তা। তিনি ঘর নির্মাণে যাবতীয় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামের মৃত সমিরুদ্দিন ফকিরের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান এবং ছাত্তার ফকিরের ছেলে লাল মিয়া সোমবার দিবাগত রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত অনুমান সাড়ে বারোটার সময় একটি বৈদ্যুতিক বাল্ব বার্স্ট হয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়। অগ্নিকাণ্ডে ২টি গরু ও কাবাসী বেওয়া নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। এ অগ্নিকান্ডে অগ্নিকাণ্ড ৪টি ঘর ও আসবারপত্র পুড়ে গেছে।

গাবতলী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, বৈদ্যুতিক বাল্ব বিস্ফোরণ হয়ে ঘরে আগুন লাগে। স্থানীয়রা আগুন দেখতে পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিভিয়ে ফেলে। এতে ঘরে থাকা বৃদ্ধার পুড়ে মারা যায়। এছাড়াও দুটি গরু ও চারটি আসবারপত্রসহ ঘর পুড়ে গেছে।

গাবতলী উপজেলা নিবাহী কমকর্তা নুসরাত জাহান বন্যা জানান, নিহতের বাড়ি গিয়ে খাবার ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। তাদের ঘর নির্মানে সরকারি ভাবে সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

কালের চিঠি/শর্মিলী

Tag :

বগুড়ায় আগুনে পুড়ে এক বৃদ্ধার মৃত্যু

Update Time : ১২:১৩:৪৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বগুড়ার গাবতলীতে আগুনে পুড়ে বৃদ্ধ মহিলাসহ তিনটি গরু দুটি পরিবারের ঘরবাড়ি আসবাবপত্র ভূস্মিভূত হয়েছে। নিহত বৃদ্ধার নাম কাবাসী বেওয়া(৭৫)।

মর্মান্তিক এ ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার বালিয়াদিঘী ইউনিয়নের সুবাদ বাজারের দক্ষিণ পাশে কলাকোপা মন্ডলপাড়া গ্রামে। নিহত বৃদ্ধা ওই গ্রামের মৃত সমিরুদ্দিন ফকিরের স্ত্রী গাবতলী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছেন গাবতলী উপজেলা নিবাহী কমকর্তা। তিনি ঘর নির্মাণে যাবতীয় সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, গ্রামের মৃত সমিরুদ্দিন ফকিরের ছেলে মোস্তাফিজুর রহমান এবং ছাত্তার ফকিরের ছেলে লাল মিয়া সোমবার দিবাগত রাতে খাওয়া-দাওয়া শেষে ঘুমিয়ে পড়ে। রাত অনুমান সাড়ে বারোটার সময় একটি বৈদ্যুতিক বাল্ব বার্স্ট হয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়। অগ্নিকাণ্ডে ২টি গরু ও কাবাসী বেওয়া নামের এক বৃদ্ধার মৃত্যু হয়েছে। এ অগ্নিকান্ডে অগ্নিকাণ্ড ৪টি ঘর ও আসবারপত্র পুড়ে গেছে।

গাবতলী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি আবুল কালাম আজাদ জানান, বৈদ্যুতিক বাল্ব বিস্ফোরণ হয়ে ঘরে আগুন লাগে। স্থানীয়রা আগুন দেখতে পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকে সংবাদ দেয়। সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আগুন নিভিয়ে ফেলে। এতে ঘরে থাকা বৃদ্ধার পুড়ে মারা যায়। এছাড়াও দুটি গরু ও চারটি আসবারপত্রসহ ঘর পুড়ে গেছে।

গাবতলী উপজেলা নিবাহী কমকর্তা নুসরাত জাহান বন্যা জানান, নিহতের বাড়ি গিয়ে খাবার ও নগদ অর্থ প্রদান করা হয়েছে। তাদের ঘর নির্মানে সরকারি ভাবে সহযোগিতা প্রদান করা হবে।

কালের চিঠি/শর্মিলী