রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নাফ নদী থেকে জেলের মরদেহ উদ্ধার

কক্সবাজারের উখিয়া পালংখালী নাফ নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় মোস্তাফিজুর রহমান নামক এক জেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিকে উখিয়া পালংখালী নাফ নদীর মোহনা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত জেলে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়ন এর ৯নং ওয়ার্ড বটতলী এলাকার বাসিন্দা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাংলখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাফরুল ইসলাম। নিহত পরিবারের দাবি মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সংঘাত চলাকালে ১ ফেব্রুয়ারি বিজিপির সদস্যরা নাফ নদী থেকে মোস্তাফিজুরকে আটক করে নিয়ে যায়।

নিহত জেলের আত্মীয় জয়নাল আবেদীন বলেন, আমাদের ভাই মোস্তাফিজুর নাফ দনীতে মাছ শিকার করে। ১৮ দিন আগে সীমান্তে উত্তেজনা চলাকালে সে নদীতে মাছ শিকাররে গেলে মিয়ানমার থেকে আসা একটি নৌকা করে তাকে আটক করে নিয়ে যায়। আমরা ১৮ দিন পর্যন্ত কোনো কোনো খোঁজ খবর পাইনি। আজ রাতে স্থানীয় জেলেরা তার মরদেহ নদীতে ভাসতে দেখতে পায়। পরে তাকে উদ্ধার করা হয়।

ইউপি সদস্য জাফরুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন আগে নাফ নদী থেকে কে বা কারা জেলে মোস্তাফিজুর অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল। এতদিন তার খোঁজ খবর মিলেনি। রোববার রাত ১০টার দিকে তাকে নদীতে ভাসতে দেখতে পান স্থানীয় জেলেরা। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে।

কালের চিঠি / আশিকুর।

Tag :

নাফ নদী থেকে জেলের মরদেহ উদ্ধার

Update Time : ০৭:২০:১২ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

কক্সবাজারের উখিয়া পালংখালী নাফ নদী থেকে ভাসমান অবস্থায় মোস্তাফিজুর রহমান নামক এক জেলের মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাত ১০টার দিকে উখিয়া পালংখালী নাফ নদীর মোহনা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়।

নিহত জেলে উখিয়া উপজেলার পালংখালী ইউনিয়ন এর ৯নং ওয়ার্ড বটতলী এলাকার বাসিন্দা। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাংলখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য জাফরুল ইসলাম। নিহত পরিবারের দাবি মিয়ানমারের অভ্যন্তরে সংঘাত চলাকালে ১ ফেব্রুয়ারি বিজিপির সদস্যরা নাফ নদী থেকে মোস্তাফিজুরকে আটক করে নিয়ে যায়।

নিহত জেলের আত্মীয় জয়নাল আবেদীন বলেন, আমাদের ভাই মোস্তাফিজুর নাফ দনীতে মাছ শিকার করে। ১৮ দিন আগে সীমান্তে উত্তেজনা চলাকালে সে নদীতে মাছ শিকাররে গেলে মিয়ানমার থেকে আসা একটি নৌকা করে তাকে আটক করে নিয়ে যায়। আমরা ১৮ দিন পর্যন্ত কোনো কোনো খোঁজ খবর পাইনি। আজ রাতে স্থানীয় জেলেরা তার মরদেহ নদীতে ভাসতে দেখতে পায়। পরে তাকে উদ্ধার করা হয়।

ইউপি সদস্য জাফরুল ইসলাম বলেন, কিছুদিন আগে নাফ নদী থেকে কে বা কারা জেলে মোস্তাফিজুর অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল। এতদিন তার খোঁজ খবর মিলেনি। রোববার রাত ১০টার দিকে তাকে নদীতে ভাসতে দেখতে পান স্থানীয় জেলেরা। পরে তার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশকে খবর দেওয়া হয়েছে।

কালের চিঠি / আশিকুর।