সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দুর্যোগপূর্ণ’ অবস্থায় ঢাকার বাতাস

বায়ুদূষণের দিক থেকে আজ বিশ্বে প্রথম ঢাকা। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক অনুযায়ী ঢাকার স্কোর ছিল ৩৯৪। পরবর্তিতে সকাল ১০টার ১৮ মিনিটের দিকে এই স্কোর হয় ৪০৮। যা দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় আছে।

এদিকে আইকিউএয়ার অনুযায়ী দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের দিল্লি। এই শহরের স্কোর ২৪৪। তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারতের মুম্বাই শহর। শহরটির দূষণ স্কোর ২৩৩ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’।

ঢাকার বাতাসে যে অতিক্ষুদ্র বস্তুকণা উপস্থিতি আছে তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানদণ্ডের চেয়ে ৬৯ গুণ বেশি। মেয়াদোত্তীর্ণ অতিরিক্ত পরিমাণে যানবাহন ব্যবহার, শিল্পায়ন, ইটের ভাটাসহ বিভিন্ন কারণে ঢাকায় বেড়েছে দূষণ। তাই বায়ুদূষণ রোধ করে বিদ্যমান আইন যথাযথভাবে প্রয়োগের সুপারিশ করছে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স।

আন্তর্জাতিক এই প্রতিষ্ঠানটি জানায়, বায়ুদূষণের কারণে বিশ্বে প্রতিবছর ৪৫ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু হয়, ৫ বছরের নিচে ৪০ হাজার শিশুর মৃত্যু হয় আর বায়ুদূষণ জনিত অসুস্থতার কারণে ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন দিনের কর্মঘণ্টা নষ্ট হয় বলে জানিয়েছে আইকিউএয়ার।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

দুর্যোগপূর্ণ’ অবস্থায় ঢাকার বাতাস

Update Time : ০৪:২৭:৪৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বায়ুদূষণের দিক থেকে আজ বিশ্বে প্রথম ঢাকা। রোববার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ৯টায় এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্সের (আইকিউএয়ার) সূচক অনুযায়ী ঢাকার স্কোর ছিল ৩৯৪। পরবর্তিতে সকাল ১০টার ১৮ মিনিটের দিকে এই স্কোর হয় ৪০৮। যা দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় আছে।

এদিকে আইকিউএয়ার অনুযায়ী দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারতের দিল্লি। এই শহরের স্কোর ২৪৪। তৃতীয় অবস্থানে আছে ভারতের মুম্বাই শহর। শহরটির দূষণ স্কোর ২৩৩ অর্থাৎ সেখানকার বায়ুর মানও ‘খুবই অস্বাস্থ্যকর’।

ঢাকার বাতাসে যে অতিক্ষুদ্র বস্তুকণা উপস্থিতি আছে তা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মানদণ্ডের চেয়ে ৬৯ গুণ বেশি। মেয়াদোত্তীর্ণ অতিরিক্ত পরিমাণে যানবাহন ব্যবহার, শিল্পায়ন, ইটের ভাটাসহ বিভিন্ন কারণে ঢাকায় বেড়েছে দূষণ। তাই বায়ুদূষণ রোধ করে বিদ্যমান আইন যথাযথভাবে প্রয়োগের সুপারিশ করছে এয়ার কোয়ালিটি ইনডেক্স।

আন্তর্জাতিক এই প্রতিষ্ঠানটি জানায়, বায়ুদূষণের কারণে বিশ্বে প্রতিবছর ৪৫ লাখ মানুষের অকাল মৃত্যু হয়, ৫ বছরের নিচে ৪০ হাজার শিশুর মৃত্যু হয় আর বায়ুদূষণ জনিত অসুস্থতার কারণে ১ দশমিক ৮ বিলিয়ন দিনের কর্মঘণ্টা নষ্ট হয় বলে জানিয়েছে আইকিউএয়ার।

স্কোর শূন্য থেকে ৫০ এর মধ্যে থাকলে বায়ুর মান ভালো বলে বিবেচিত হয়। ৫১ থেকে ১০০ হলে মাঝারি বা সহনীয় ধরা হয় বায়ুর মান। সংবেদনশীল গোষ্ঠীর জন্য অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয় ১০১ থেকে ১৫০ স্কোর। ১৫১ থেকে ২০০ পর্যন্ত অস্বাস্থ্যকর হিসেবে বিবেচিত হয়। স্কোর ২০১ থেকে ৩০০ হলে খুবই অস্বাস্থ্যকর বলে বিবেচনা করা হয়। এছাড়া ৩০১-এর বেশি হলে তা দুর্যোগপূর্ণ বলে বিবেচিত হয়।

কালের চিঠি / আলিফ