বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নান্নু-বাশারকে ‘হারাতে চায় না’ বিসিবি, পাচ্ছেন নতুন পদ

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাচক হিসেবে হাবিবুল বাশারকে সঙ্গী করে টানা ৮ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। জাতীয় দলের নির্বাচক হিসেবে তাদের অধ্যায় শেষ হলো সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি)। নির্বাচক হিসেবে তারা এখন সাবেক হলেও তাদের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করছে না বিসিবি। টাইগারদের সাবেক দুই অধিনায়ককে বিসিবিতে নতুন ভূমিকায় দেখা যাবে, এমনটিই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

গত বছরের শেষ দিন নির্বাচক হিসেবে মেয়াদ শেষ হয় নান্নুর নেতৃত্বাধীন কমিটির। বোর্ডের সিদ্ধান্ত দেরিতে আসায় মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন তারা। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বোর্ড সভায় নান্নুকে সরিয়ে প্রধান নির্বাচক করা হয় গাজী আশরাফ হোসেন লিপুকে আর বাশারের জায়গায় আসেন হান্নান সরকার। আগের কমিটি থেকে কেবল আব্দুর রাজ্জাক টিকে যান।

প্রধান নির্বাচক হিসেবে প্রায়ই চরম সমালোচনার মুখে পড়েছেন নান্নু। তবে বিসিবির মতে, তারা দারুণ কাজ করেছেন। বোর্ড সভাপতি জানান, অন্য পদে তাদেরকে কাজের সুযোগ করে দেয়া হবে।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা সবাই তাদের কাজের প্রশংসা করেছি। তাদের অবদান আমাদের ক্রিকেটে অনেক। আমরা সকলেই এক বাক্যে স্বীকার করেছি তাদের জন্য খুবই খুশি আমরা। তাদের আমরা হারাতেও চাই না। সেজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তাদেরকে বোর্ডের জুতসই জায়গায় নিয়ে যাব।’

কালের চিঠি / আলিফ

Tag :

নান্নু-বাশারকে ‘হারাতে চায় না’ বিসিবি, পাচ্ছেন নতুন পদ

Update Time : ০৪:২০:০৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) প্রধান নির্বাচক হিসেবে হাবিবুল বাশারকে সঙ্গী করে টানা ৮ বছর দায়িত্ব পালন করেছেন মিনহাজুল আবেদিন নান্নু। জাতীয় দলের নির্বাচক হিসেবে তাদের অধ্যায় শেষ হলো সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি)। নির্বাচক হিসেবে তারা এখন সাবেক হলেও তাদের সঙ্গে সম্পর্ক শেষ করছে না বিসিবি। টাইগারদের সাবেক দুই অধিনায়ককে বিসিবিতে নতুন ভূমিকায় দেখা যাবে, এমনটিই জানিয়েছেন বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

গত বছরের শেষ দিন নির্বাচক হিসেবে মেয়াদ শেষ হয় নান্নুর নেতৃত্বাধীন কমিটির। বোর্ডের সিদ্ধান্ত দেরিতে আসায় মেয়াদ শেষ হওয়ার পরও কাজ চালিয়ে যাচ্ছিলেন তারা। সোমবার (১২ ফেব্রুয়ারি) বোর্ড সভায় নান্নুকে সরিয়ে প্রধান নির্বাচক করা হয় গাজী আশরাফ হোসেন লিপুকে আর বাশারের জায়গায় আসেন হান্নান সরকার। আগের কমিটি থেকে কেবল আব্দুর রাজ্জাক টিকে যান।

প্রধান নির্বাচক হিসেবে প্রায়ই চরম সমালোচনার মুখে পড়েছেন নান্নু। তবে বিসিবির মতে, তারা দারুণ কাজ করেছেন। বোর্ড সভাপতি জানান, অন্য পদে তাদেরকে কাজের সুযোগ করে দেয়া হবে।

নাজমুল হাসান পাপন বলেন, ‘আমরা সবাই তাদের কাজের প্রশংসা করেছি। তাদের অবদান আমাদের ক্রিকেটে অনেক। আমরা সকলেই এক বাক্যে স্বীকার করেছি তাদের জন্য খুবই খুশি আমরা। তাদের আমরা হারাতেও চাই না। সেজন্য আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তাদেরকে বোর্ডের জুতসই জায়গায় নিয়ে যাব।’

কালের চিঠি / আলিফ