শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রাজা চার্লসের ক্যান্সার শনাক্ত, জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস।

রাজা চার্লসের শরীরে এক ধরনের ক্যান্সার শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস ।

এটি কী ধরনের ক্যান্সার তা এখনো প্রকাশিত হয় নি। এটা প্রোস্টেট ক্যান্সার না কিন্তু তার সাম্প্রতিক প্রোস্টেটের চিকিৎসার সময় এটা ধরা পড়ে।

রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, সোমবার থেকে রাজা চার্লসের নিয়মিত চিকিৎসা শুরু হয়েছে। চিকিৎসাকালীন এই সময়ে জনসম্মুখে দায়িত্ব পালন থেকে তিনি বিরত থাকবেন।

৭৫ বছর বয়সী রাজা “ এই চিকিৎসার বিষয়ে সম্পূর্ণ ইতিবাচক এবং যত দ্রুত সম্ভব আবার সম্পূর্ণ দায়িত্ব পালনে ফেরার বিষয়ে আশাবাদী” এতে যোগ করা হয়েছে।

ক্যান্সার কোন পর্যায়ে বা এর প্রক্রিয়া সম্পর্কে আর বিস্তারিত কিছু বলা হয় নি।

রাজা চার্লস তার দুই ছেলেকে এই বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে অবহিত করেছেন। প্রিন্স অব ওয়েলস তার বাবার সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি তার বাবার সাথে কথা বলেছেন এবং শীঘ্রই বাবার সাথে দেখা করতে যুক্তরাজ্যে যাবেন।

রাজা সোমবার সকালে নরফোকের সান্দ্রিংহাম থেকে লন্ডন ফিরেছেন। রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, একজন বর্হিবিভাগের রোগী হিসেবে তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

যদিও তিনি তার পাবলিক ইভেন্ট বন্ধ করেছেন, তবে রাজা চার্লস রাষ্ট্রের প্রধান হিসেবে সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবেন। একইসাথে ব্যক্তিগত বৈঠক এবং অন্যান্য কাগজপত্র দেখার কাজ অব্যাহত রাখবেন।

এটা বোঝা যাচ্ছে যে, যদি চিকিৎসকরা তাকে যোগাযোগ কমিয়ে আনতে না বলেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সাথে তার নিয়মিত সাপ্তাহিক সাক্ষাৎ অব্যাহত থাকবে।

রাষ্ট্রের প্রধান যখন সরকারি দায়িত্ব পালন করতে অক্ষম হয়ে পড়েন, এরকম পরিস্থিতির জন্য একটি সাংবিধানিক ব্যবস্থা রয়েছে। সেই পরিস্থিতিতে রাজার পক্ষে কাজ করার জন্য “রাষ্ট্রের পরামর্শদাতাদের” নিয়োগ করা যেতে পারে।

বর্তমানে তাদের মধ্যে আছেন রানি ক্যামিলা, প্রিন্স উইলিয়াম, প্রিন্সেস রয়েল এবং প্রিন্স এডওয়ার্ড। প্রিন্স হ্যারি এবং ডিউক অব ইয়র্ককে আর ডাকা হয় না কারণ তারা আর রাজপরিবারের সদস্য নয়।

কালের চিঠি/ ফাহিম

Tag :
Popular Post

বালু ব্যবসায়ীর মিথ্যা মামলায় সাংবাদিক কারাগারে

রাজা চার্লসের ক্যান্সার শনাক্ত, জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস।

Update Time : ০৫:০৪:২৬ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

রাজা চার্লসের শরীরে এক ধরনের ক্যান্সার শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছে বাকিংহাম প্যালেস ।

এটি কী ধরনের ক্যান্সার তা এখনো প্রকাশিত হয় নি। এটা প্রোস্টেট ক্যান্সার না কিন্তু তার সাম্প্রতিক প্রোস্টেটের চিকিৎসার সময় এটা ধরা পড়ে।

রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, সোমবার থেকে রাজা চার্লসের নিয়মিত চিকিৎসা শুরু হয়েছে। চিকিৎসাকালীন এই সময়ে জনসম্মুখে দায়িত্ব পালন থেকে তিনি বিরত থাকবেন।

৭৫ বছর বয়সী রাজা “ এই চিকিৎসার বিষয়ে সম্পূর্ণ ইতিবাচক এবং যত দ্রুত সম্ভব আবার সম্পূর্ণ দায়িত্ব পালনে ফেরার বিষয়ে আশাবাদী” এতে যোগ করা হয়েছে।

ক্যান্সার কোন পর্যায়ে বা এর প্রক্রিয়া সম্পর্কে আর বিস্তারিত কিছু বলা হয় নি।

রাজা চার্লস তার দুই ছেলেকে এই বিষয়ে ব্যক্তিগতভাবে অবহিত করেছেন। প্রিন্স অব ওয়েলস তার বাবার সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন।

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত ডিউক অব সাসেক্স প্রিন্স হ্যারি তার বাবার সাথে কথা বলেছেন এবং শীঘ্রই বাবার সাথে দেখা করতে যুক্তরাজ্যে যাবেন।

রাজা সোমবার সকালে নরফোকের সান্দ্রিংহাম থেকে লন্ডন ফিরেছেন। রাজপ্রাসাদ থেকে জানানো হয়েছে, একজন বর্হিবিভাগের রোগী হিসেবে তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

যদিও তিনি তার পাবলিক ইভেন্ট বন্ধ করেছেন, তবে রাজা চার্লস রাষ্ট্রের প্রধান হিসেবে সাংবিধানিক দায়িত্ব পালন করবেন। একইসাথে ব্যক্তিগত বৈঠক এবং অন্যান্য কাগজপত্র দেখার কাজ অব্যাহত রাখবেন।

এটা বোঝা যাচ্ছে যে, যদি চিকিৎসকরা তাকে যোগাযোগ কমিয়ে আনতে না বলেন, তাহলে প্রধানমন্ত্রী ঋষি সুনাকের সাথে তার নিয়মিত সাপ্তাহিক সাক্ষাৎ অব্যাহত থাকবে।

রাষ্ট্রের প্রধান যখন সরকারি দায়িত্ব পালন করতে অক্ষম হয়ে পড়েন, এরকম পরিস্থিতির জন্য একটি সাংবিধানিক ব্যবস্থা রয়েছে। সেই পরিস্থিতিতে রাজার পক্ষে কাজ করার জন্য “রাষ্ট্রের পরামর্শদাতাদের” নিয়োগ করা যেতে পারে।

বর্তমানে তাদের মধ্যে আছেন রানি ক্যামিলা, প্রিন্স উইলিয়াম, প্রিন্সেস রয়েল এবং প্রিন্স এডওয়ার্ড। প্রিন্স হ্যারি এবং ডিউক অব ইয়র্ককে আর ডাকা হয় না কারণ তারা আর রাজপরিবারের সদস্য নয়।

কালের চিঠি/ ফাহিম