রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

টাঙ্গাইল শাড়ির উৎপত্তি বিতর্ক, ভারতের দাবির প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে বিক্ষোভ

 

টাঙ্গাইলের শাড়ির পরিচয় নিয়ে বিতর্কে জড়ানো এবারই প্রথম নয়

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ করেন একদল তরুন।
টাঙ্গাইলের শাড়ি নিয়ে ভারতীয় দাবির প্রতিবাদে এবং বাংলাদেশের পণ্য হিসেবে জিআই স্বীকৃতির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে টাঙ্গাইলের একদল তরুণ।

শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ করেন তারা।

এতে বক্তব্য রাখেন, শিশুদের জন্য ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠাতা মুঈদ হাসান তড়িৎ, সমাজকর্মী নাদিউর রহমান আকাশ, আহসান খান আকাশ, মির্জা রিয়ানসহ আরও অনেকে।

বাংলাদেশের বিখ্যাত টাঙ্গাইল শাড়ির উৎস পশ্চিমবঙ্গ-এমনটা দাবি করেছে ভারতীয় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়। বিতর্কিত দাবিটি মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল পেজে একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে করা হয়েছিল, যা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনা ও হাস্যরসের জন্ম দিয়েছে।

পোস্টে দাবি করা হয়েছে, “টাঙ্গাইল শাড়ি, পশ্চিমবঙ্গ থেকে উদ্ভূত একটি ঐতিহ্যবাহী হাতে বোনা মাস্টারপিস। সূক্ষ্ম উপস্থাপন, প্রাণবন্ত রং এবং জটিল বুননের জন্য শাড়িটি বিখ্যাত, এটি এই অঞ্চলের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের প্রতীক। প্রতিটি টাঙ্গাইল শাড়ি দক্ষ কারুকার্যের প্রমাণ; এশাড়িশাড়ীর উৎপত্টিতি ঐতিহ্য এবং কমনীয়তাকে একত্রিত করে।“

দেশটির সরকারি দপ্তরের এমন দাবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় তুলেছে, মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। ভারতের একটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের এই ধরনের বিবৃতির সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তারা। টাঙ্গাইলের শাড়ির পরিচয় নিয়ে বিতর্কে জড়ানো এবারই প্রথম নয়। কলকাতা বিমানবন্দরে একটি বাণিজ্যিক শাড়ির উৎপত্তি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করেছিল, এটিকে পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার ফুলিয়ায় হাতে বোনা হিসেবে চিহ্নিত করে।

  • কালের চিঠি/
Tag :

শ্রেণিকক্ষে যৌন হয়রানির অভিযোগ, ২ শিক্ষককে বরখাস্তের দাবিতে বিদ্যালয়ে তালা

টাঙ্গাইল শাড়ির উৎপত্তি বিতর্ক, ভারতের দাবির প্রতিবাদে টাঙ্গাইলে বিক্ষোভ

Update Time : ০৪:৪৩:৫২ অপরাহ্ন, শনিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

 

টাঙ্গাইলের শাড়ির পরিচয় নিয়ে বিতর্কে জড়ানো এবারই প্রথম নয়

শনিবার (৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ করেন একদল তরুন।
টাঙ্গাইলের শাড়ি নিয়ে ভারতীয় দাবির প্রতিবাদে এবং বাংলাদেশের পণ্য হিসেবে জিআই স্বীকৃতির দাবিতে বিক্ষোভ করেছে টাঙ্গাইলের একদল তরুণ।

শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সামনে সচেতন নাগরিক সমাজের ব্যানারে এ বিক্ষোভ করেন তারা।

এতে বক্তব্য রাখেন, শিশুদের জন্য ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠাতা মুঈদ হাসান তড়িৎ, সমাজকর্মী নাদিউর রহমান আকাশ, আহসান খান আকাশ, মির্জা রিয়ানসহ আরও অনেকে।

বাংলাদেশের বিখ্যাত টাঙ্গাইল শাড়ির উৎস পশ্চিমবঙ্গ-এমনটা দাবি করেছে ভারতীয় সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়। বিতর্কিত দাবিটি মন্ত্রণালয়ের অফিসিয়াল পেজে একটি ফেসবুক পোস্টের মাধ্যমে করা হয়েছিল, যা সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সমালোচনা ও হাস্যরসের জন্ম দিয়েছে।

পোস্টে দাবি করা হয়েছে, “টাঙ্গাইল শাড়ি, পশ্চিমবঙ্গ থেকে উদ্ভূত একটি ঐতিহ্যবাহী হাতে বোনা মাস্টারপিস। সূক্ষ্ম উপস্থাপন, প্রাণবন্ত রং এবং জটিল বুননের জন্য শাড়িটি বিখ্যাত, এটি এই অঞ্চলের সমৃদ্ধ সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের প্রতীক। প্রতিটি টাঙ্গাইল শাড়ি দক্ষ কারুকার্যের প্রমাণ; এশাড়িশাড়ীর উৎপত্টিতি ঐতিহ্য এবং কমনীয়তাকে একত্রিত করে।“

দেশটির সরকারি দপ্তরের এমন দাবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ঝড় তুলেছে, মানুষ ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। ভারতের একটি গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রণালয়ের এই ধরনের বিবৃতির সত্যতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন তারা। টাঙ্গাইলের শাড়ির পরিচয় নিয়ে বিতর্কে জড়ানো এবারই প্রথম নয়। কলকাতা বিমানবন্দরে একটি বাণিজ্যিক শাড়ির উৎপত্তি নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করেছিল, এটিকে পশ্চিমবঙ্গের নদীয়া জেলার ফুলিয়ায় হাতে বোনা হিসেবে চিহ্নিত করে।

  • কালের চিঠি/