রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী গাইবান্ধা জেলা ইজতেমা 

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মাঠের হাটে তাবলীগ জামায়াতের আয়োজনে তিন দিন ব্যাপী জেলা ইজতেমা শুরু হয়েছে।

 

(১৮ জানুয়ারি) ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তিনদিন ব্যাপী গাইবান্ধা জেলা ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় ।

এবারের ইজতেমায় ইসলামি জীবন বিধান ও ধর্মের আলোকে বয়ান করবেন তাবলিগ জামাতের মুরুব্বি ঢাকা থেকে আগত মুফতি মাওলানা আজিমুদ্দিন, মুফতি মাওলানা আজিজসহ কয়েকজন।

এরআগে গতকাল ১৭ জানুয়ারি থেকেই গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও আশেপাশের জেলাগুলোর প্রায় কয়েক হাজার মুসল্লি ইজতেমা মাঠে অবস্থান নেয় ।

 

আগামী শনিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে ইজতেমার কার্যক্রম শেষ হবে।

 

গাইবান্ধা জেলা ইজতেমা পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক শাহজাহান কবির জানান, জেলা ভিত্তিক আঞ্চলিক ইজতেমার অংশ হিসেবে গাইবান্ধায় এ আয়োজন করা হয়েছে। ইজতেমা মাঠে বিশাল শামিয়ানা স্থাপন করে মুসল্লিদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া অস্থায়ী টয়লেট, অজু ও গোসলের জন্য পানি সাপ্লাইয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইজতেমায় অংশগ্রহণের জন্য গাইবান্ধা জেলা ছাড়াও আশপাশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে মুসল্লিরা ময়দানে এসে সমবেত হয়েছেন। এ ছাড়া ইজতেমায় তাবলিগ জামাতের মুরুব্বিরাও অংশগ্রহণ করেছেন।

 

 

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মো. কামাল হোসেন জানান, ইজতেমা ময়দানে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক নিয়োজিত রয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। সব মিলে ইজতেমা ঘিরে যেকোনও ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে।

Tag :

আম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে তিনদিন ব্যাপী গাইবান্ধা জেলা ইজতেমা 

Update Time : ০৭:২৫:৪৫ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৮ জানুয়ারী ২০২৪

গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী উপজেলার মাঠের হাটে তাবলীগ জামায়াতের আয়োজনে তিন দিন ব্যাপী জেলা ইজতেমা শুরু হয়েছে।

 

(১৮ জানুয়ারি) ফজরের নামাজের পর আম বয়ানের মধ্য দিয়ে তিনদিন ব্যাপী গাইবান্ধা জেলা ইজতেমার আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় ।

এবারের ইজতেমায় ইসলামি জীবন বিধান ও ধর্মের আলোকে বয়ান করবেন তাবলিগ জামাতের মুরুব্বি ঢাকা থেকে আগত মুফতি মাওলানা আজিমুদ্দিন, মুফতি মাওলানা আজিজসহ কয়েকজন।

এরআগে গতকাল ১৭ জানুয়ারি থেকেই গাইবান্ধা জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও আশেপাশের জেলাগুলোর প্রায় কয়েক হাজার মুসল্লি ইজতেমা মাঠে অবস্থান নেয় ।

 

আগামী শনিবার (২০ জানুয়ারি) দুপুরে আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে ইজতেমার কার্যক্রম শেষ হবে।

 

গাইবান্ধা জেলা ইজতেমা পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক শাহজাহান কবির জানান, জেলা ভিত্তিক আঞ্চলিক ইজতেমার অংশ হিসেবে গাইবান্ধায় এ আয়োজন করা হয়েছে। ইজতেমা মাঠে বিশাল শামিয়ানা স্থাপন করে মুসল্লিদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ছাড়া অস্থায়ী টয়লেট, অজু ও গোসলের জন্য পানি সাপ্লাইয়ের ব্যবস্থা করা হয়েছে। ইজতেমায় অংশগ্রহণের জন্য গাইবান্ধা জেলা ছাড়াও আশপাশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা থেকে মুসল্লিরা ময়দানে এসে সমবেত হয়েছেন। এ ছাড়া ইজতেমায় তাবলিগ জামাতের মুরুব্বিরাও অংশগ্রহণ করেছেন।

 

 

গাইবান্ধার পুলিশ সুপার মো. কামাল হোসেন জানান, ইজতেমা ময়দানে নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সুপারের নেতৃত্বে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা সার্বক্ষণিক নিয়োজিত রয়েছে। এ ছাড়া বিভিন্ন স্থানে পুলিশের টহল জোরদার করা হয়েছে। সব মিলে ইজতেমা ঘিরে যেকোনও ধরনের পরিস্থিতি মোকাবিলায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা তৎপর রয়েছে।