শুক্রবার, ১২ জুলাই ২০২৪, ২৮ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

দেশের নবগঠিত মন্ত্রিসভার কে কোন দায়িত্বে

 

বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ পড়ালেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। শপথ নেওয়ার পর নতুন দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের দপ্তর বণ্টন করা হয়।

 

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেছেন।

 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পইর আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থবার সরকার গঠন করেছে। আজ বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। শপথ নেওয়ার পর নতুন দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের দপ্তর বণ্টন করা হয়।

 

পূর্ণ মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়

 

পূর্ণ মন্ত্রীদের মধ্যে আ ক ম মোজাম্মেল হককে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়, ওবায়দুল কাদেরকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়, আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে অর্থ মন্ত্রণালয়, আনিসুল হককে আইন মন্ত্রণালয়, নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনকে শিল্প মন্ত্রণালয়, আসাদুজ্জামান খানকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মো. তাজুল ইসলামকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, মুহাম্মদ ফারুক খানকে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়, মোহাম্মদ হাছান মাহমুদকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, দীপু মনিকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, সাধন চন্দ্র মজুমদারকে খাদ্য মন্ত্রণালয়, আবদুস সালামকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, মো. ফরিদুল হক খানকে ধর্ম মন্ত্রণালয়, র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, নারায়ণ চন্দ্র চন্দকে ভূমি মন্ত্রণালয়, জাহাঙ্গীর কবির নানককে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, মো. আবদুর রহমানকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, মো. আবদুস শহীদকে কৃষি মন্ত্রণালয়, ইয়াফেস ওসমানকে (টেকনোক্র্যাট) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং সামন্ত লাল সেনকে (টেকনোক্র্যাট) স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, মো. জিল্লুল হাকিমকে রেলপথ মন্ত্রণালয়, ফরহাদ হোসেনকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, নাজমুল হাসানকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, সাবের হোসেন চৌধুরীকে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং মহিবুল হাসান চৌধুরীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

 

প্রতিমন্ত্রী

 

বেগম সিমিন হোসেন রিমি – মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়

নসরুল হামিদ – বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

জুনাইদ আহমেদ পলক – তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ

মোহাম্মদ আলী আরাফাত – পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

মো. মহিববুর রহমান – শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী – নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়

জাহিদ ফারুক – জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়

কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা – পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়

শফিকুর রহমান চৌধুরী – পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়

আহসানুল ইসলাম টিটু – বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়।

Tag :

বালু ব্যবসায়ীর মিথ্যা মামলায় সাংবাদিক কারাগারে

দেশের নবগঠিত মন্ত্রিসভার কে কোন দায়িত্বে

Update Time : ০৪:৫৫:০৪ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১১ জানুয়ারী ২০২৪

 

বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ পড়ালেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। শপথ নেওয়ার পর নতুন দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের দপ্তর বণ্টন করা হয়।

 

বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ গ্রহণ করেছেন।

 

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ বিজয়ের পইর আওয়ামী লীগ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে টানা চতুর্থবার সরকার গঠন করেছে। আজ বঙ্গভবনে নতুন মন্ত্রিসভার সদস্যদের শপথ পড়ান রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। শপথ নেওয়ার পর নতুন দ্বায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রীদের দপ্তর বণ্টন করা হয়।

 

পূর্ণ মন্ত্রী ও মন্ত্রণালয়

 

পূর্ণ মন্ত্রীদের মধ্যে আ ক ম মোজাম্মেল হককে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয়, ওবায়দুল কাদেরকে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়, আবুল হাসান মাহমুদ আলীকে অর্থ মন্ত্রণালয়, আনিসুল হককে আইন মন্ত্রণালয়, নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনকে শিল্প মন্ত্রণালয়, আসাদুজ্জামান খানকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, মো. তাজুল ইসলামকে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, মুহাম্মদ ফারুক খানকে বেসামরিক বিমান পরিবহন মন্ত্রণালয়, মোহাম্মদ হাছান মাহমুদকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়, দীপু মনিকে সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, সাধন চন্দ্র মজুমদারকে খাদ্য মন্ত্রণালয়, আবদুস সালামকে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, মো. ফরিদুল হক খানকে ধর্ম মন্ত্রণালয়, র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়, নারায়ণ চন্দ্র চন্দকে ভূমি মন্ত্রণালয়, জাহাঙ্গীর কবির নানককে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়, মো. আবদুর রহমানকে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়, মো. আবদুস শহীদকে কৃষি মন্ত্রণালয়, ইয়াফেস ওসমানকে (টেকনোক্র্যাট) বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় এবং সামন্ত লাল সেনকে (টেকনোক্র্যাট) স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, মো. জিল্লুল হাকিমকে রেলপথ মন্ত্রণালয়, ফরহাদ হোসেনকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, নাজমুল হাসানকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, সাবের হোসেন চৌধুরীকে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং মহিবুল হাসান চৌধুরীকে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

 

প্রতিমন্ত্রী

 

বেগম সিমিন হোসেন রিমি – মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়

নসরুল হামিদ – বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী

জুনাইদ আহমেদ পলক – তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ

মোহাম্মদ আলী আরাফাত – পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়

মো. মহিববুর রহমান – শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী – নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়

জাহিদ ফারুক – জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়

কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা – পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়

শফিকুর রহমান চৌধুরী – পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়

আহসানুল ইসলাম টিটু – বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়।